যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বাংলার মাটিতে অবশ্যই হবে -চীপ হুইপ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ

জাতীয় সংসদের চীপ হুইপ উপাধ্যক্ষ আব্দুস শহীদ বলেছেন, আন্তর্জাতিক ট্র্যাইব্যুনালের মাধ্যমে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার অবশ্যই হবে। বিচার কার্য বাঁধা গ্রস্থ করার হীন চক্রান্ত চলছে। একটি মহল মিথ্যাচারে নেমেছে। এরা গনতন্ত্রকে পদদলিত করার ষড়যন্ত্র করছে। গত সংসদ নির্বাচনে দূর্নীতিবাজদের কবর দিয়েছে জনগন। তারা এখন সরকারের পরিবর্তন চায়। ভোটের অপেক্ষা করতে রাজি নয়। জোর করে টেনে খিচড়ে নামিয়ে দিবেন। তাদের ভাষা হচ্ছে জ্বালাও, পোড়াও, মানি না, মানব না। বি এন পি’র প্রতি ইঙ্গিত করে হুইপ বলেন, আপনারা কয় মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করেছেন। শুধু খাম্বার ব্যবসা করেছেন। সংসদে না গিয়ে পুলিশকে পেটানোর নাম গনতন্ত্র নয়। ২শ ৫৪ দিনের মধ্যে মাত্র ৬দিন সংসদে গিয়েছেন। বেতন ভাতা তো ঠিকই নিচ্ছেন। ৬ দিনে ২৭ ঘন্টা ৩ মিনিট বক্তব্য দিয়েছেন। আমি ও এত সময় বক্তৃতা দিতে পারিনি। তারপর ও বলেন আপনাদের কে কথা বলতে দেয়া হয় না। আমরা দেশ থেকে দূর্নীতি, দুঃশাসন ও সন্ত্রাস দূর করে উন্নত প্রযুক্তির বাংলাদেশ গড়তে চাই। দেশের অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিবর্তনের মাধ্যমে মানুষের মুখে হাঁসি ফুটাতে চাই। তিনি বিরুধী দলীয় নেতা বেগম জিয়াকে সংসদে  এসে জনগনের কথা বলার আহবান জানান। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে “আশুতোষ চক্রবর্ত্তী স্মারক শিক্ষাবৃত্তি-২০১২”এর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, পড়া লেখার বিকল্প কিছু নেই। শিক্ষাকে লালনের জন্য আর্থিক ত্যাগ একটা উজ্জল দৃষ্টান্ত। সুন্দর পৃথিবীকে ভালভাবে দেখতে হলে জ্ঞানের চোখকে প্রসারিত করতে হবে। ছাত্র-ছাত্রীদের পড়া লেখার প্রতি মনোযোগী হওয়ার উপদেশ দেন। এমন একটি নান্দনিক ও শিক্ষার্থীদেরকে উৎসাহ মূলক বৃত্তি প্রদানের জন্য স্বর্গীয় আশতোষ চক্রবর্ত্তীর পরিবারকে তিনি ধন্যবাদ জানান। তিনি স্থানীয় পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সমপ্রসারনের কাজে সরকারের সহযোগীতার আশ্বাস দিয়েছেন। ঢাকাস্থ আয়শা মেমোরিয়াল স্পেশালাইজড হসপিটাল (প্রাঃ) লিঃ এর চেয়ারম্যান ও আশুতোষ চক্রবর্ত্তীর জ্যেষ্ঠ কন্যা প্রীতি চক্রবর্ত্তীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টীর কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান এড. জিয়াউল হক মৃধা, উপজেলা চেয়ারম্যান হাজী রফিক উদ্দিন ঠাকুর, সরাইল আ’লীগের সভাপতি হাজী আব্দুল হালিম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শশাংক শেখর ভৌমিক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ এস এম শাহে দুল ইসলাম, আ’লীগ কানাডা শাখার সভাপতি এম এ আহাদ, এ এস পি (সার্কেল) আবু শহীদ মোঃ সারোয়ার, শিক্ষক এম এ হাসান ও সরাইল প্রেস ক্লাবের সভাপতি মোঃ আইয়ুব খান। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন আশুতোষ চক্রবর্ত্তী স্মারক শিক্ষাবৃত্তির সদস্য সচিব ডাঃ আশীষ কুমার চক্রবর্ত্তী ও সরাইলের কৃতি শিক্ষার্থী রুমা চক্রবর্ত্তী। সবশেষে প্রধান অতিথি সরাইল অন্নদা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় ও পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মোট ৩৪ জন মেধাবী শিক্ষার্থীর হাতে শিক্ষাবৃত্তির নগদ টাকা, ক্রেস্ট, সনদপত্র ও গিফট বক্স তুলে দেন। দ্বিতীয় পর্বে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/মোহাম্মদ মাসুদ/সরাইল

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

৩২ ধারা বহাল রেখে ডিজিটাল নিরাপত্তা বিল পাস

ষ্টাফ রিপোর্টার :: সাংবাদিক ও মানবাধিকার সংগঠনসহ বিভিন্ন মহলের আপত্তি সত্ত্বেও বহুল ...