ব্রেকিং নিউজ

মোরেলগঞ্জে পানি ও স্যানিটেশন খাতে জনপ্রতি বরাদ্ধ মাত্র ৩ টাকা

মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম মাসুম, মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি ::  বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে পানি ও স্যানিটেশন খাতে জনপ্রতি বার্ষিক বরাদ্ধ মাত্র ৩ টাকা। উপজেলার মানুষ লবনাক্ততার কারণে নলকূপের পানি পান করতে পারেনা। লবনাক্তার কারণে ৯০ শতাংশ মানুষের জীবন-জীবিকা বিপন্ন।

এলাকার ৭৫ ভাগ পরিবারে সুপেয় পানির অভাব রয়েছে। পানির লবনাক্তার কারণে এখানকার ৫০ ভাগ মানুষ বিভিন্ন ধরণের স্বাস্থ্যগত সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে।

এখানকার অধিকাংশ মানুষ বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ করে এবং পুকুর ও খালের পানি পান করে। আগামী কাল (২২ মার্চ) বুধবার বিশ্ব পানি দিবস উপলক্ষ্যে আজ মঙ্গলবার (২১ মার্চ) দুপুরে বেসরকারী সংস্থা ‘ডরপ’ কার্যালয়ে মোরেলগঞ্জ বাজেট ক্লাব আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পানি ও স্যানিটেশন খাতের এ করুন চিত্র ফুটে ওঠে।

সংবাদ সম্মেলনে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন বাজেট ক্লাব সভাপতি ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ  কমান্ডার মো. লিয়াকত আলী খান।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, দক্ষিণাঞ্চলীয় অবহেলিত এক জনপদেও নামমোরেলগঞ্জ উপজেলা। এ উপজেলায় ১টি পৌরসভা, ১৬টি ইউনিয়নের মধ্যে ৬টি ইউনিয়নে পানি ও স্যানিটেশন নিয়ে ‘পানিই জীবন’ প্রকল্পে কাজ করছে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ‘ডরপ’  ৬টি ইউনিয়নে দেড় লক্ষাধীক জনসংখ্যার জন্য ইউনিয়ন পরিষদের মোট বাজেট বরাদ্দ ৮ কোটি ৭২ লক্ষ টাকা হলেও পানিও স্যানিটেশন খাতে বাজেট বরাদ্দ মাত্র ৪ লক্ষ ৫৮ হাজার টাকা। অর্থাৎ জনপ্রতি পানি ও স্যানিটেশন খাতে বাজেট বরাদ্দ মাত্র ৩ টাকা।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সরকারী হিসাবে মোরেলগঞ্জ উপজেলার ছয়টি ইউনিয়নে (মোড়েলগঞ্জ সদর, বাড়ইখালী, নিশানবাড়িয়া, বহরবুনিয়া, জিওধারা, খাওলিয়া) নিরাপদ পানির জন্য সরকারি ভাবে ২৫৩ টি পন্ড সেন্ড ফিল্টার-পিএসএফ স্থাপন করা হলেও বর্তমানে ১০৬ টি অকেজো হয়ে পড়ে আছে।

নলকূপের পানি পান করানো গেলেও এই ৬ টি ইউনিয়নে ১হাজার ৩৬৮ টি নলকূপের মধ্যে বর্তমানে ৩৯৬ টি অকেজ অবস্থায় পড়ে আছে। নিরাপদ পানির জন্য স্থানীয়রা দূর দূরান্ত (১-৩ কি.মি.) থেকে পুকুরের পানি সংগ্রহ করে পান করছে।
সাংবাদ সম্মেলনে ইউনিয়ন পরিষদে পানিও স্যানিটেশন খাতে প্রয়োজনীয় বাজেট বরাদ্দ দেয়া, পিএসএফ সংষ্কারে উদ্যোগ নেয়া, একজন স্থায়ী‘ উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী কর্মকর্তা’ মঞ্জুর করা, প্রতিটি গ্রামে অন্ত:ত ২টি করে পুকুর খনন করা, নদীর পানি শোধন করে গ্রাম পর্যায়ে সরবরাহের ব্যবস্থা করাসহ সরকারের কাছে ৭ টি দাবি উপস্থাপন করা হয়।

এসময় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জিউধরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর আলম বাদশা, র্ডপ’র প্রোগ্রাম সমন্বয়কারী আমির খসরু, বাজেট ক্লাবের সদস্য সাংবাদিক মো.ফজলুল হক খোকন, সদস্য সচিব মো. আবু সায়েম হোসেন, বিডিপিসির প্রকল্প সমন্বয়কারী সজীব মুন্সী প্রমূখ।
উল্লেখ্য, মোরেলগঞ্জ বাজেট ক্লাব-হ্যালভিটাস সুইস ইন্টার কোঅপারেশনের সহায়তায় বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ‘ডরপ’ বাস্তবায়িত‘ পানিই জীবন’ প্রকল্পের একটি উদ্যোগ।

বাজেট ক্লাব স্থানীয় পানি ও স্যানিটেশন খাতে সরকারের বাজেট বরাদ্দ মনিটরিং ও তার যথাযথ বাস্তবায়ন এবং উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের বাজেট  বাড়ানোর ক্ষেত্রে লবি-এ্যাডভোকেসি প্লাটফর্ম হিসেবে কাজ করছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ঢাকাসহ ১৬ জেলায় ‘উপকূল দিবস’ পালিত

ঢাকাসহ ১৬ জেলায় ‘উপকূল দিবস’ পালিত: রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি দাবি

স্টাফ রিপোর্টার :: রাজধানী ঢাকাসহ উপকূলের ১৬ জেলায় ৫৪ স্থানে দ্বিতীয়বারের মত ...