মিয়ানমার যাবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী

স্টাফ রিপোর্টার :: হত্যা-ধর্ষণসহ জাতিগত নিধনের মুখে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফিরে যাওয়ার মতো সহায়ক পরিবেশ তৈরির বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করতে মিয়ানমার সফর করবেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী।

এ সফর শিগগিরই হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র সচিব এম শহিদুল হক। তিনি বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী একটি উদ্যোগ নিয়েছেন। রোহিঙ্গাদের ফিরে যাওয়ার মতো সহায়ক পরিবেশ তৈরি হয়েছে কিনা, ঘরবাড়ি তৈরি হয়েছে কিনা, তাদের চলাফেরা ও ব্যবসা-বাণিজ্যের কী অবস্থা হবে, সেটি দেখতে তিনি স্বশরীরে মিয়ানমারে যাবেন।

মঙ্গলবার মেরিটাইম কাউন্টার টেররিজম শীর্ষক কর্মশালা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে পররাষ্ট্র সচিব এ কথা বলেন।

এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরের দিনক্ষণ সম্পর্কে জানতে চাইলে শহিদুল হক বলেন, শিগগিরই যাবেন। সহায়ক পরিবেশ তৈরি হয়ে গেলে প্রত্যাবাসন দ্রুততার সঙ্গে শুরু হবে বলে আশা করি।

আশ্রয় নেয়া কিছু রোহিঙ্গার নাম যাচাই-বাছাই সম্পন্ন হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমার মনে হয়, সহসাই প্রত্যাবাসন শুরু হবে।

তবে রোহিঙ্গাদের ফিরে যাওয়ার প্রক্রিয়াটি জটিল বলে জানান পররাষ্ট্র সচিব। তিনি বলেন, আমার মনে হয়, বাংলাদেশে এটি যত দ্রুততার সঙ্গে এগিয়েছে, অন্য দেশে তত দ্রুততার সঙ্গে সম্পন্ন হয়নি।

উল্লেখ্য, গত বছরের আগস্টের শেষের দিকে মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা) নামে একটি বিদ্রোহী দলের সংঘর্ষ হয়।

এর জের ধরে নিরাপত্তা বাহিনী পুরো রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর দমনপীড়ন শুরু করে। এ সময় গণহত্যা-গণধর্ষণের মুখে রোহিঙ্গারা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিতে শুরু করে। গত ১১ মাসে অন্তত সাড়ে সাত লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পৌঁছেছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

রাজীব মীর

রাজীব মীর আর নেই

স্টাফ রিপোর্টার :: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক সহযোগী ...