ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিস্কারসহ ১৭ জনের শাস্তি

মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের খাদ্য প্রযুক্তি ও পুষ্টি বিজ্ঞান বিভাগের  ৩ শিড়্গার্থীকে স্থায়ী বহিস্কারসহ ১৭ জন শিড়্গার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শাসিত্ম দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে তিন জনকে স্থায়ী ভাবে বহিস্কার, তিন জনকে দুই বছর এবং দুইজনকে এক বছরের জন্য বহিস্কার করা হয়েছে। এছাড়া দুই ও এক বছরের বহিস্কার আদেশ প্রাপ্ত ৫ শিড়্গার্থীসহ অপর  ৯ শিড়্গার্থীর প্রত্যেককে  ২৫ হাজার টাকা করে অর্থ দন্ড দেয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে এই প্রথমবার শিড়্গার্থীদের স্থায়ী বহিস্কার করা হল। স্থায়ীভাবে বহিস্কৃত শিড়্গার্থীরা হলেন চতুর্থ বর্ষ দ্বিতীয় সেমিস্টারের আব্দুলস্নাহ আল হাদী, তৃতীয় বর্ষ দ্বিতীয় সেমিস্টারের নুর নবী সিদ্দিকী ও একই বর্ষের শামিম উল হক। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম নুরম্নল ইসলাম এর সভাপতিত্বে শনিবার  অনুষ্ঠিত  রিজেন্ট বোর্ডের সভায় এ সিদ্ধানত্ম নেওয়া হয়।

দুই বছর মেয়াদি বহিস্কৃতরা হলেন, তৃতীয় বর্ষ প্রথম সেমিস্টারের সাইফুল ইসলাম, একই বর্ষের সামছুল হক ও প্রথম বর্ষ দ্বিতীয় সেমিস্টারের সজীব তালুকদার। এক বছর মেয়াদি বহিস্কৃত শিড়্গার্থীরা হলেন, তৃতীয় বর্ষ প্রথম সেমিস্টারের কে.এইচ.আল আমিন ও দ্বিতীয় বর্ষ প্রথম সেমিস্টারের সৃব্রত কর্মকার।

অর্থ দন্ড  প্রাপ্ত শিড়্গার্থীরা হলেন, চতুর্থ বর্ষ দ্বিতীয় সেমিস্টারের মাহবুব হাসান, একই বর্ষের সিফাত মোঃ আরেফিন, মোঃ আক্তার উজ্জামান,মোঃ শাহাবুদ্দিন আহমেদ ও মাইনুল হাসান, তৃতীয় বর্ষ দ্বিতীয় সেমিস্টারের হোসাইন মাহমুদ লিটন, তৃতীয় বর্ষ প্রথম সেমিস্টারের কাওসার উল আলম, একই বর্ষের আব্দুর রহমান এবং দ্বিতীয় বর্ষ প্রথম সেমিস্টারের মোঃ আরিফুল ইসলাম।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম নুরুল ইসলাম বলেন, কেন স্থায়ীভাবে বহিস্কার আদেশ ও অর্থদন্ডাদেশ কার্যকর করা হবে না এই মর্মে শিক্ষার্থীদেরকে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে কারণ দর্শাও নোটিশ দেওয়া হবে। যদি শিক্ষার্থীদের জবাব সন্তোষজনক হয় তবে কর্তৃপক্ষ আদেশকৃত সিদ্ধান্ত পুনরায় বিবেচনা করবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মুহম্মদ উমর ফারুক বলেন, শিক্ষার্থীদেরকে শাস্তি দেওয়ার ক্ষেত্রে যথেষ্ট নমনীয়তা দেখানো হয়েছে। সিদ্ধান্ত পুনরায় বিবেচনায় মিড়্গার্থীদের শাস্তি মওকুফ হলে তাদেরকে বিশেষ ব্যবস্থায় পরীক্ষা নেয় তবে বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, ১২ সেপ্টেম্বর খাদ্য প্রযুক্তি ও পুষ্টি বিজ্ঞান বিভাগের ক্রেডিট ফি কমানোকে কেন্দ্র করে উক্ত বিভাগের শিক্ষার্থীরা অফিস কক্ষ ভাংচুর, শিড়্গক ও কর্মচারীকে মারধর, আসবাবপত্র লুট ও বিভাগীয় চেয়ারম্যানকে তিন ঘন্টা অবরুদ্ধ করে রাখে। পরে প্রক্টরীয়াল বডির এক জরুরী সভায় ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ১০ শিক্ষার্থীকে সাময়িক ভাবে বহিস্কার ও তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

তদন্ত কমিটি সাময়িক ভাবে বহিস্কৃত ১০ শিক্ষার্থীসহ উপরিউক্ত ১৭ শিক্ষার্থীর ঘটনার সাথে জড়িত থাকার প্রমান পান।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/রিয়াজ উদ্দিন রিপন/মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

অ্যালবার্ট আইনস্টাইন

বিখ্যাতদের দাম্পত্য জীবন- ৮: অ্যালবার্ট আইনস্টাইন

সাইদুর রহমান  :: কথায় আছে, “যার নয়নে যারে লাগে ভালো, হোক না দেহ ...