Home / টপ নিউজ / ভাঙা রাস্তা মেরামতের দাবীতে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের অভিনব প্রতিবাদ

ভাঙা রাস্তা মেরামতের দাবীতে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের অভিনব প্রতিবাদ

ভাঙা রাস্তা মেরামতের দাবীতে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের অভিনব প্রতিবাদআসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট প্রতনিধি :: লালমনিরহাট সদর উপজেলার দুইটি সরকারি আবাসনে চলাচলের একমাত্র রাস্তাটির ভাঙাস্থান সংস্কারের দাবীতে অভিনব প্রতিবাদ করেছে আবাসনে থাকা ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা।

রোববার বিকালে ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা তাদের অভিভাবকদের সঙ্গে নিয়ে দ্রুত ভাঙা রাস্তাটি মেরামতের দাবীতে পানিতে দাঁড়িয়ে এই অভিনব প্রতিবাদ জানান।

তবে সেই ভাঙা রাস্তাটি মেরামত করার দাবী করে লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, পুলিশ সুপার, উপজেলা চেয়ারম্যান, পৌর মেয়র, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রেসক্লাব বরাবর লিখিত ভাবে আবেদনও করেন এলাকাবাসী। এসব শিক্ষার্থী পার্শ্ববর্তী রামকৃষ্ণ মিশন এলাকার শিশু কল্যাণ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করেন তারা জানিয়েছেন।

লালমনিরহাট রামকৃষ্ণ মিশন এলাকার শিশু কল্যাণ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহসেনা আখতার বলেন, রোববার বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের মা সমাবেশ ছিল। ওই সমাবেশে আবাসনের কয়েকজন শিক্ষার্থীর মা বলেছেন তাদের একমাত্র চলাচলের রাস্তাটি ভাঙা এবং বেহাল দশা। এজন্য শিক্ষার্থীরা অনেক সময় ভিজে কাঁদা পানি মাড়িয়ে বিদ্যালয়ে আসতে চায় না। এ কারণে বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী উপস্থিতির সংখ্যা কম হয়। বিষয়টি রেজুলেশনে উল্লেখ করে লালমনিরহাট সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে অবহিত করা হবে।

লালমনিরহাট পৌরসভার-৭ নং ওয়ার্ডের কমিশনার হাসান কামাল ভূট্টু বলেন, আসাবনের ভালো-মন্দ সবকিছুই দেখার দায়িত্ব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার। রাস্তাটি পৌরসভার ৭ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যে পড়েছে। রাস্তাটির দুই দিকের জমি নিচু হওয়ায় অনেকে বর্ষাকালে এসব জমিতে মাছ চাষ করে। তবে আরসিসি ঢালাই দিয়ে ড্রেন নির্মাণ করাসহ রাস্তাটি নির্মাণে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে ওই রাস্তাটা দিয়ে চলাচলে মানুষের সাময়িক অসুবিধা হচ্ছে বলে তিনি স্বীকার করেন।’

লালমনিরহাটের সাপটানা আবাসন-১ ও আবাসন-২ এর বসবাসকারী বাসিন্দা রাশেদুল ইসলাম ও মাসেম আলী বলেন, ‘কাঁদা পানিতে ভিজেই শিশুরা বিদ্যালয়ে যায়। দ্রুত রাস্তাটি মেরামতসহ আপাতত শিশুদের বিদ্যালয়ে যাতায়াত স্বাভাবিক রাখতে প্রয়োজনে বাঁশের সাঁকো নির্মাণের দাবী জানাচ্ছি।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে লালমনিরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম বলেন, এডিবির বরাদ্দ পাওয়া গেলে লালমনিরহাট সদর উপজেলার সাপটানা আবাসন-১ ও আবাসন-২ চলাচলের রাস্তাটির ভাঙা অংশটি মেরামত করে দেওয়া হবে। তিনি বলেন, এ দুইটি আবাসনে মোট ৩১০টি পরিবার বসবাস করেন।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

সাংবাদিক আনন্দ দাসকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দূর্বৃত্তরা যশোর সদর উপজেলার চাঁচড়া হরিণার বিলে গলা, হাত ও পায়ের রগ কেটে হত্যার চেষ্টা করে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সাংবাদিক আনন্দ দাসকে হত্যা চেষ্টার প্রতিবাদে কেশবপুরে সাংবাদিকদের বিক্ষোভ

জাহিদ আবেদীন বাবু, কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি :: যশোরের কেশবপুর প্রেসক্লাবের সদস্য বিশিষ্ট ...