বেতন চাওয়ায় পিয়ন পিটালেন ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল ল্যাবরেটরী কলেজের চেয়ারম্যান

বেতন চাওয়ায় পিয়ন পিটালেন ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল ল্যাবরেটরী কলেজের চেয়ারম্যানবিশেষ প্রতিনিধি :: গভীর রাতে হোস্টেলে গিয়ে ছাত্রীদের ওপর নির্যাতন। শিক্ষার্থীদের জিম্মি করে অর্থ আদায়। বাড়ি ভাড়া নিয়ে মালিক বনে যাওয়া। অভিযোগের যেন কমতি নেই ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল ল্যাবরেটরী কলেজের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান সুমনের বিরুদ্ধে। দিন দিন যেন পাল্লা দিয়েই বাড়ছে তার অপরাধ। সেই সাথে যুক্ত হচ্ছে ভুক্তভোগীদের অভিযোগ। এবার তার বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন তারই কলেজের পিয়ন মানিক মিয়া। বকেয়া বেতন চাওয়ায় মারধরের শিকার হতে হয়েছে তাকে।

মঙ্গলবার রাজধানীর খিলক্ষেত থানার অন্তর্ভুক্ত নিকুঞ্জ এলাকার বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান‘রেসিডেন্সিয়াল ল্যাবরেটরির কলেজে এই ঘটনাটি ঘটে। মানিক মিয়া দীর্ঘ সাড়ে তিন বছর ধরে পিয়ন পোস্টে কাজ করে আসছেন এই কলেজে।

নির্যাতনের শিকার মানিক মিয়া বলেন, ‘চলতি বছরের আগস্ট থেকে এখন পর্যন্ত মোট ৪ মাস ধরে আমাকে বেতন দেওয়া হয় না। তাই বাধ্য হয়ে কলেজের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমানের কাছে সরাসরি উপস্থিত হয়ে বেতনের কথা বলি। সে কোনো কথা না শুনেই উল্টো আমাকে মারতে শুরু করে। তখন আমাকে মোট ৪ থেকে ৫ টা থাপ্পড়সহ উরুতে লাথি দেয় এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে।’
মানিক মিয়া আরও বলেন, ‘ঘটনাস্থলে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বিভাস ঘটক ও সহকারী শিক্ষক অপু উপস্থিত ছিল।

তারা কেউই আমাকে বাঁচাতে আসেনি। পরে আমি খিলক্ষেত থানায় গিয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি করি(জিডি নং-১১৭৩)।’
এ ব্যাপারে কলেজের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান বলেন, ‘তোমরা যা শুনেছ , নিউজ করে দাও। ও(মানিক) বেয়াদবি করেছে তাই মার খেয়েছে।‘ তাকে পুনরায় প্রশ্ন করা হয় আপনার কি মানিককে মারার অধিকার আছে এবং কেন মেরেছেন যদি বলতেন? তিনি আবারো বলেন, ‘মানিককে জিজ্ঞাস করো সে কি ভুল করেছে। আর নিউজ করবে তো করো’।

এই বিষয়ে খিলক্ষেত থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, এ বিষয়ে আমি কিছু জানি না। খোঁজ নিচ্ছি।
পরে মানিক মিয়ার কাছ থেকে ফোন নাম্বার নিয়ে পুলিশ কর্মকর্তা নাহিদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। তবে জিডি হয়নি বলে দাবি করেন। শেষে তার পদ পদবী জানতে চাওয়া হলে উত্তর না দিয়ে ফোন কেটে দেন। তারপর একাধিকবার ফোন দিলেও রিসিভ করেননি।

প্রসঙ্গত, কলেজ চেয়ারম্যান আজিজুর রহমানের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের নির্যাতন,জিম্মি করে অর্থআদায় নিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছিল একাধিক গণমাধ্যমে। আর চলতি মাসে তার অপকর্ম নিয়ে বাংলাদেশ প্রতিদিনে ‘টার্গেট করে বাড়ি ভাড়া’ শিরোনামে একটি সংবাদও প্রকাশিত হয়েছিল।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

‘বিএনপির বেশিরভাগ অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়নি’

স্টাফ রিপোর্টার :: নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেছেন, ‘এখন পর্যন্ত ...