ব্রেকিং নিউজ

বেগম খালেদা জিয়া যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে জামায়াতের আমীর হয়ে মাঠে নেমেছে: নাসিম

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, বিরোধী দলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া দেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস- করতে এবং একাত্তরের ঘাতক যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে জামায়াতের আমীর হয়ে মাঠে নেমেছেন। মুক্তিযোদ্ধা, আওয়ামী লীগ ও গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে তিনি যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন। দেশ ও জাতির এই ঘৃন্য শত্রুকে মোকাবেলা করতে তিনি দেশবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে কলারোয়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়নে আওয়ামী লীগ আয়োজিত কর্মী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথাগুলি বলেন।  কলারোয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ আহ্বায়ক সাজেদুর রহমান খান চৌধুরী মজনুর সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন যোগাযোগ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স’ায়ী কমিটির সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার শেখ মুজিবুর রহমান এমপি, স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় নেতা রফিকুল ইসলাম লিটন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বিএম নজরুল ইসলাম, সাবেক গণপরিষদ সদস্য মমতাজ আহমেদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু প্রমুখ।

মোহাম্মদ নাসিম আরো বলেন, পচাত্তরের ও একাত্তরের ঘাতকদের বিরুদ্ধে মহাজোট সরকার যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন। সরকার পচাত্তরের খুনিদের স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় বিচার করে ফাঁসি দিয়েছে। একাত্তরের ঘাতকের বিচার চলছে। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার জঙ্গী দমন করে দেশে শানি- ফিরিয়ে এনেছে বলে দেশের মানুষ এখন শানি-তে ঘুমাতে পারছে। এখন আর মানুষকে আতঙ্কে রাত কাটাতে হয় না। ঈদ ও পূজাসহ সব ধর্মের মানুষ শানি-তে তাদের নিজ নিজ ধর্মীয় অনুষ্ঠান শানি-পূর্ণভাবে পালন করছে।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক মিত্র পাকিস-ানে এখন সর্বত্র বোমা হামলা চলছে। আমেরিকা ওসামা বিন লাদেনকে এ্যাবটোবাদ থেকে গ্রেফতার করে তাকে হত্যা করেছে। আজ যদি বিএনপি বা জামায়াত ক্ষমতায় থাকতো তাহলে লাদেন গ্রেফতার হতো ঢাকায়। সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরে সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, মহাজোট সরকার কৃষি ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তন এনেছে। মাত্র ১০ টাকায় প্রত্যেক কৃষককে একাউন্ট খুলে দিয়েছেন। কৃষক এখন স্বল্পমূল্যে বীজ ও সার পাচ্ছে। সারের জন্য কৃষককে এখন আর গুলি খেয়ে মরতে হয় না। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার বিদ্যুৎ খাত উন্নয়নে ব্যাপক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। ইতিমধ্যে বিদ্যুৎ ক্ষেত্রে উন্নতি হয়েছে বলে এখন লোডশেডিংয়ের মাত্রা সহনীয় পর্যায়ে চলে এসেছে। অথচ বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার এক মেগাওয়াটও বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে পারেনি। বরং বিদুৎ খাত থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা অর্থ লুট করেছে।

কামরুল হাসান/কলারোয়া।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

১০ বছরেও আন্দোলন জমেনি, মানুষ বাঁচে কয় বছর: ওবায়দুল কাদের

ষ্টাফ রিপোর্টার ::  আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ...