বিয়ের আগে অন্তঃসত্ত্বা ১৯ তরুণী গ্রেপ্তার!

ডেস্ক : এক বাড়িতেই ছিলেন ১৯ গর্ভবতী নারী। প্রত্যেকেই চেয়েছিলেন জন্ম নেয়ার পরই সন্তানকে বিক্রি করে ফিরে যাবেন বাড়িতে। কিন্তু তার আগেই তাদের গ্রেপ্তার করেছে নাইজেরিয়ান পুলিশ।নাইজেরিয়ায় শিশু পাচার ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। জাতিসংঘের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী আফ্রিকার এই দেশটিতে সবচেয়ে বেশি হয় প্রতারণা, তারপর মাদকের ব্যবসা সংক্রান্ত অপরাধ আর তারপরই রয়েছে শিশু পাচার।

শিশু পাচার এতটাই ভয়াবহ হয়ে উঠেছে যে পাচারকারীরা এখন আর শিশুর জন্মের অপেক্ষা করে না, তার আগেই চুক্তি করে ফেলে সন্তানের মা কিংবা সংশ্লিষ্ট অন্য কারো সঙ্গে।

 এতে বিয়ের আগেই অন্তঃসত্ত্বা হয়ে যাওয়া কিছু মেয়ের খুব সুবিধা হয়েছে। অনাকাঙ্খিত সন্তানের কারণে সামাজিক হয়রানি এড়াতে তারা সময়মতো চলে যান দূরের কোনো মাতৃসেবা কেন্দ্রে। সেখানে নিরাপদে তারা সন্তানের জন্ম দেন। জন্মের পরপরই বিক্রি হয়ে যায় সদ্যোজাত শিশু। শিশু বিক্রির টাকার একটা অংশ পেয়ে খুশি মনেই তখন বাড়ি ফেরেন মায়েরা।

গত শুক্রবার উমুআহিয়া শহরের এক বাড়ি থেকে সেরকম ১৯ তরুণীকে গ্রেপ্তার করেছে নাইজেরিয়ার পুলিশ। আর কয়েকদিন পর তারা প্রত্যেকেই মা হতেন। তারপর সন্তান বিক্রি করে কিছু টাকাও পেতেন। কিন্তু তা আর হলো না। গ্রেপ্তার হয়ে তারা এখন হাজতে।

শিশু পাচারকারীকে ধরা যায়নি। পুলিশ আসার আগেই পাচারকারী পালিয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

দেবর-ভাবির পরকীয়ায় খুন হন বড় ভাই

ষ্টাফ রিপোর্টার :: রাজধানীর বাড্ডার সাতারকুল এলাকায় দেবর-ভাবির পরকীয়ায় বলি হন মনিরুজ্জামান ...