বিএনপির কাজই মিথ্যাচার করা: ওবায়দুল কাদের

ওবায়দুল কাদেরইয়ানুর রহমান, শার্শা প্রতিনিধি :: সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি বলেছেন, ‘রামপাল বিষয়ে সরকার কোনো মিথ্যাচার করছে না। ইউনেসকো কিছু ছোট ছোট শর্ত দিয়েছে, দেশ জনগণ ও পরিবেশের স্বার্থে সরকার সেগুলো পূরণ করবে। বরং বিএনপির কাজই হলো মিথ্যাচার এবং কান্নাকাটি করা, তারা পুরনো সেই রেকর্ড বাজিয়েই চলেছে।’

রবিবার (৯ জুলাই) সকালে দলের খুলনা বিভাগীয় সমাবেশে যাওয়ার আগে যশোরের রাজারহাট মোড়ে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

সড়ক নির্মাণে দুর্নীতির বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘করাপশান ইজ এ ওয়ে অব লাইফ অ্যাক্রোস দ্য ওয়ার্ল্ড! দুর্নীতি ছিল, কিন’ অনেক কমিয়েছি।’

তিনি নিজ মন্ত্রণালয়ের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘এখন টেন্ডার হয় ইলেক্ট্রনিক মাধ্যমে; সে কারণে এখানে টেম্পারিংয়ের কোনো সুযোগ নেই। সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্র্রে দুর্নীতি। আমাদের প্রধানমন্ত্রী সৎ; তার সততার কারণে অনেক সেক্টরে দুর্নীতি কমানো হয়েছে। সেক্ষেত্রে এ ধরনের অভিযোগ অনেকটা অমূলক।’

সেতুমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমাদের মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও সচিব পার্সেন্টেজ, কমিশন এবং প্রমোশনে কোনো অর্থ নেয় না। যদি কোনো মন্ত্রণালয়ের সচিব দুর্নীতিমুক্ত থাকেন, সেক্ষেত্রে ওই মন্ত্রণালয়ে দুর্নীতি অটোমেটিক্যালি ৫০ পার্সেন্ট কমে যায়।’

তিনি প্রশ্ন করেন, ‘দেশে পদ্মা সেতুর মতো মেগা প্রজেক্ট কিংবা মেট্রো রেলের প্রকল্প নিয়ে কই বিদেশিরা তো প্রশ্ন তুলছে না?’

বাংলাদেশের সড়কে বেশি অর্থ ব্যয় হচ্ছে- এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, আগের যে রাস্তা ছিল চার লেনের, এখন আলটিমেটলি তা হচ্ছে আট লেনের। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে সার্ভিস লেন। বিদেশিরা পূবের্র সেই চার লেনের রাস্তার হিসেব দিচ্ছে। আমরা তাদের এ বিষয়ে বুঝিয়েছি। তাছাড়া আমাদের দেশের মাটির অবস্থাটিও বিবেচনায় রাখতে হবে। অনেক নিচু জমি উঁচু করা লাগে।

রামপাল বিষয়ে বিএনপির বক্তব্যের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা মিথ্যাচারের ভাঙা রেকর্ড বাজাচ্ছে। আওয়ামী লীগ মিথ্যাচারের রাজনীতি করে না। যা প্রকাশ্য দিবালোকের মতো সত্য, সেই কথাটিই আমরা বলছি।

তিনি বলেন, ইউনেসকো কিছু শর্ত দিয়েছে- ছোট ছোট সেই শর্ত আমরা অবশ্যই পূরণ করবো। একেবারে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে- এটি সত্য নয়। আমরা বাধাটা জনগণের স্বার্থে, দেশের স্বার্থে, পরিবেশের স্বার্থে অবশ্যই সংশোধন করবো।

বিএনপির আন্দোলনের বিষয়ে তিনি বলেন, তারা বসে বসে প্রেস ব্রিফিং করে আর কান্নাকাটি করে তাদের কর্মীদের জন্যে কষ্ট হয় বলে। কিন’ তারা তো আমাদের হাজার হাজার কর্মীকে হত্যা করে রক্তস্রোত বইয়ে দিয়েছে। আমাদের কাঁদতে কাঁদতে এখন চোখের পানি শুকিয়ে গেছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শীতার্থদের মাঝে ছাত্রলীগ নেতার শীতবস্ত্র বিতরণ

শীতার্থদের মাঝে ছাত্রলীগ নেতার শীতবস্ত্র বিতরণ

জহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :: “আদি হতে অন্ত রবে বন্ধুত্বের বৃত্ত” ...