ব্রেকিং নিউজ

বাঘ পিটিয়ে মেরেছে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী

বাঘে পিটিয়ে মেরেছে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসীআসাদুজ্জামান সাজু, লালমনিরহাট প্রতিনিধি :: লালমনিরহাটের আদিতমারীতে একটি বাঘের বাচ্চাকে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। এর আগে ৬জনকে আক্রমন করে আহত করেছে বাঘের বাচ্চাটি।

আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে আদিতমারী উপজেলার পলাশী ইউনিয়নের মহিষাশহর গ্রামের লোকজন বাঘের বাচ্চাটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলে।

আহতরা হলেন, মহিষাশহর গ্রামের মন্টু মিয়ার স্ত্রী খাদিজা বেগম(৩৫), একই গ্রামের স্কুল শিক্ষক অমূল্য চন্দ্র রায়(৪০),কমল চন্দ্র(৩০), শ্যামল চন্দ্র(৩৫), তার ভাই বিমল চন্দ্র(৩৮), পাশ্ববর্তি বড়াইবাড়ি গ্রামের সুমন(১৪) ও নলীনি মোহন(৪০)। আহতদের লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে জলাতংক রোগের ভ্যাকসিন দেয়া হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানান, গত ২৪ নভেম্বর সকালে প্রথমে শ্যামল ও তার ভাই বিমলকে আক্রমন করে মুখে ও পেটে থাবা মেরে রক্তাক্ত জখম করে। পরদিন অনুরুপ ভাবে খাদিজা বেগমকে কোরআন শরীফ পড়া অবস্থায় থাবা মেরে মাথায় আঘাত করে। এ ভাবে এক সপ্তাহের ব্যাবধানে ৬জনকে রক্তাক্ত জখম করে এ প্রাণিটি।

এ ভাবেই পুরো গ্রামে শুরু হয় বাঘ আতৎক। রাত হলেই মানুষ লাঠি ছাড়া বাহিরে বের হত না। শনিবার সকালে অনুরুপ ভাবে ওই গ্রামের দুলালের বাড়িতে আক্রমন করে। এসময় তাদের আত্নচিৎকারে এলাকাবাসী এসে বাঘের বাচ্চাটিকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মেরে ফেলে।

বাঘ মেরে ফেলার খবরে ওই বাড়িতে উৎসুক জনতা ভিড় করলে তা মহিষাশহর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বাঘের বাচ্চার মৃতদেহ ঝুলে রাখা হয়।

বাঘের বাচ্চাটিকে দেখতে আসা কেউ কেউ বন বিড়াল বললেও স্থানীয়রা তা মানতে নারাজ। তাদের দাবি বন বিড়াল হলে মানুষ দেখে ভয়ে পালিয়ে যেত।

কিন্তু এটি দিন কি রাত মানুষ দেখলেই তার ঝাপিয়ে পড়ে বাঘের মতই আক্রমন করে। তাদের মতে খুধার্ত বাঘের বাচ্চাটি খাদ্যের সন্ধানে ভারত থেকে আসতে পারে।

স্থানীয় আদিতমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) জহুরুল ইসলাম জানান, বন বিভাগের রংপুর রেঞ্জকে খবর দেয়া হয়েছে। তারা এলে বুঝা যাবে এটি বাঘ না বন বিড়াল।

 

 

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

নয়াপল্টনে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ

স্টাফ রিপোর্টার :: রাজধানীর নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের ...