বসকে ফাঁকি দিয়ে ফেসবুক করার ৬টি উপায়

face bookইউনাইটেড নিউজ ডেস্ক :: অফিসে ঢুকেই শান্তি। কারণ অফিসটা ওয়াইফাই। ব্যাস আর চিন্তা নেই। কোম্পানির খরচে লাইক, কমেন্ট, ছবি আপলোড, ডিপি বদলানো এমনকি ডিজলাইক সব করে নেন নিঃসঙ্কোচে। দিন চলছিল ভালোই একদিন বিপত্তি, বস পিছনে দাঁড়িয়ে দেখছেন আপনি নির্দ্বিধায় চ্যাট সারছেন পাশের পারার বৌদি কিংবা সদ্য পাশ করা কলেজ ছাত্রীর সঙ্গে।

ব্যাস, নোটিশ বোর্ডে ঝুলে গেলো “অফিসটা ফেসবুক করার যায়গা নয়।” তাহলে উপায়? আধুনিক হবেন অথচ অফিসে ফেসবুক করবেন না তা কখনো হয়? বস কে হালকা ডজ মেরে অফিসে ঢুকে ফাটাফাটি ফেসবুক চ্যাট চালিয়ে যাবার ছয়টি উপায়।

১. ভুলেও বসকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠাবেন না
আর যাই করুণ ভুলেও বসকে ফেসবুকে বন্ধুত্বের আবেদন নৈব নৈব চ। কারণ একটু ভালো করে ভেবে দেখুন আপনি ওনার ফেসবুক বন্ধু না হলে আপনি কতক্ষণ অনলাইন আছেন বা কি করছেন সে ব্যাপারে উনি সম্পূর্ণ অন্ধকারে থাকবেন। আপনাকে ‘অনলাইন’ ধরতে বসকে অনেক বেগ পেতে হবে শান্তিতে এবার ফেসবুক করুন। আর যদি ফ্রেন্ড লিস্টে আপনার বস থাকে তাহলে কি করবেন?

 ২. বসকে হাইড করে রাখুনসাপ ও মরবে লাঠিও ভাঙবে না এমনটাই যদি আপনার অভীষ্ট হয় তাহলে নির্দ্বিধায় বসকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠিয়ে হাইড করে রাখুন। আপনি কতক্ষণ অনলাইন থাকছেন সবাই দেখতে পারবেন খালি আপনার বস ছাড়া। এবার বস যদি খুব একটা টেক স্যাভি না হন নিশ্চিন্ত। আপনাকে পায় কে? মিতু, মিতা কিংবা শর্মিলা সবার সঙ্গে আপনি আছেন ফেসবুকে অনলাইন।

৩. লাইক কমেন্ট নয়
চাকরির ব্যাপার। বুট পালিশের জমানায় বসকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট না পাঠিয়ে উপায় কি! তাই একান্তই যদি ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠান কখনই অফিসে বসে কোনো ছবি বা স্ট্যাটাসে লাইক কমেন্ট ভুলেও করবেন না। কারণ বসের নোটিফিকেশনে আপনার নাম সহ লাইক কীর্তি উঠতে কতক্ষণ?

৪. ছবি আপলোড করার আগে দশবার ভাবুন
বাড়ি থেকে ভেবে বেরিয়েছেন কাল সারা রাত পার্টির পর সদ্য পাওয়া ‘হারগিলগিলে’(জিরো ফিগার) রমণীর সঙ্গে তোলা ছবি গুলো অফিসে ঢুকেই ঝটাপট আপলোড করে দেবেন। আপনার চাকরি আর কদিন আছে সে বিষয়ে দিন গুনতে শুরু করুন। লাইক, কমেন্টেই বসের কাছে হলুদ কার্ড খেয়েছেন এবার ছবি আপলোড করলে নির্ঘাত লাল কার্ড।

৫. চ্যাট বন্ধ করে রাখুন
সদ্য মাধ্যমিক পাশ করা টনি থেকে উচ্চমাধ্যমিকের ঝিঙ্কু মামনি সবাই জানেন চ্যাট বন্ধ করে সহজেই অনলাইন থেকে ফাঁকি দেওয়া যায় দেখাতে না চাওয়া লোকটিকে। এখন আপনার বস যতই অত্যধিক ফেসবুক করেন বলে আপনাকে সন্দেহ করুন আপনি চ্যাট বন্ধ করে রাখলেই পেয়ে যাবেন পার পাওয়ার সঠিক রাস্তা।

৬. ফেসবুক টা না হয় অফিসে নাই করলেন
সর্বশেষ পয়েন্ট। অত্যধিক ন্যায় পরায়ণ হয়ে অফিসে না হয় ফেসবুকটা একটু কমই করলেন। নেটের খরচা বাঁচাতে নিজেই ‘খরচা’ হওয়ার আগে অফিসপ্রেমী ভাবমূর্তি তুলে ধরে ফেসবুকটা একটু কম করুন। কে বলতে পারে সামনের বর্ষায় আপনার জন্য অপেক্ষা করছে না পদোন্নতি।–

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শিবগঞ্জের জঙ্গি আস্তানা

শিবগঞ্জের জঙ্গি আস্তানা থেকে চারজনের মরদেহ উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার :: চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবপুর উপজেলার শিবনগর গ্রামে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে একটি ...