বগুড়ায় মধ্যযুগীয় বর্বরতার শিকার গৃহবধূ শামিমা

তানসেন আলম, বগুড়া

যৌতুক না দেয়ায় বগুড়ার শাজাহানপুরে মধ্যযুগীয় বর্বরতার শিকার হয়েছে শামিমা (২০) নামের এক গৃহবধূ। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার মাঝিড়া ইউনিয়নের সাজাপুর উত্তরপাড়ায়। এ ঘটনায় শাজাহানপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে।

জানাগেছে, ৫ বছর পুর্বে সাজাপুর উত্তরপাড়ার আব্দুল হাইয়ের পুত্র আব্দুল মতিন (৩০) পাশের এলাকা চকপাড়ার মৃত তফিজ উদ্দিনের কন্যা শামীমা আকতার (২০) কে বিয়ে করে। তাদের ঘরে বর্তমানে ৪ বছর বয়সী একটি পুত্র সন-ান রয়েছে।

শামিমার অভিযোগ বিয়ের পর থেকেই নানা অজুহাতে স্বামী তাকে মারধর করতো। সংসার চালাতে গিয়ে মতিন কয়েকটি এনজিওর কাছে  প্রায় ২ লক্ষ টাকা ঋণগ্রস- হয়ে পড়ে। ওই ঋণ পরিশোধ করতে শামীমাকে তার বাবার বাড়ি থেকে টাকা আনতে বলে মতিন। এক পর্যায়ে জমি বিক্রি করে টাকা আনতে চাপ দেয়। কিন’ শামীমা তাতে রাজী না হলে তাকে মধ্যযুগীয় বর্বরতার শিকার হতে হয়।  গত সোমবার রাতে শয়ন ঘরে শামীমার হাত-পা বেঁধে শরীরের বিভিন্ন স’ানে ব্লেড দিয়ে ক্ষত-বিক্ষত করা হয়। শুধু তাই নয় তার গোপনাঙ্গে জোর করে বালু ঢুকিয়ে দিলে শামিমা গুরুতর অসুস’ হয়ে পড়ে।

ঘটনাটি জানাজানি হলে স’ানীয় মহিলা ইউপি মেম্বার সুফিয়া বেগম অসুস’ শামীমাকে চিকিৎসার জন্য বগুড়া মোহাম্মাদ আলী হাসপাতালে ভর্তি করে। চিকিৎসা শেষে শামীমা কিছুটা সুস’ হয়ে উঠলে গতকাল বৃহস্পতিবার চকপাড়ার শতাধিক লোকজন তাকে নিয়ে শাজাহানপুর থানায় আসে এবং শামীমা বাদি হয়ে স্বামী আব্দুল মতিন সহ ৩ ব্যাক্তিকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা।

অপরদিকে স্ত্রীকে নির্যাতন করার কথা অস্বীকার করে আব্দুল মতিন সাংবাদিকদের জানায়, বিয়ের পর থেকেই শামীমা পরকিয়ায় জড়িয়ে পড়ে। সংসারের দিকে তার কোন মনযোগ ছিল না। এ নিয়ে কয়েক দফা শালিশ দরবার হয়েছে।

এ বিষয়ে শাজাহানপুর থানার ওসি রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদ জানান, মামলাটি নথিভুক্ত করা হয়েছে। তদন- সাপেক্ষে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস’া নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ডে-কেয়ার আইন চূড়ান্ত পর্যায়ে: চুমকি

ডে-কেয়ার আইন চূড়ান্ত পর্যায়ে: চুমকি

স্টাফ রিপোর্টার :: মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি ...