বগুড়ায় পাসপোর্ট অফিসের এডিকে কুপিয়ে জখম: যুবলীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৪

বগুড়ায় পাসপোর্ট অফিসের এডিকে কুপিয়ে জখম: যুবলীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৪তানসেন আলম, বগুড়া প্রতিনিধি :: বগুড়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক (এডি) শাহজাহান কবিরকে কুপিয়ে জখম করার মামলায় বগুড়ার পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও যুবলীগ নেতা মোস্তাকিম রহমানসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রাতেই তাদেরকে বিভিন্ন জায়গাথেকে গ্রেফতার করা হয়। কাউন্সিলর মোস্তাকিম ওই মামলার প্রধান আসামী।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ৩ টার দিকে পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বগুড়ার পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা এসব কথা বলেন। তিনি জানান, বগুড়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক (এডি) শাহজাহান কবিরের ওপর সশস্ত্র হামলার প্রধান আসামি মোস্তাকিম রহমান দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার হিলি সীমান্তের ডাঙাপাড়ার সাতকুড়ি বাজার এলাকায় অবস্থান করছে।

পুলিশ হেডকোয়ার্র্টস ইন্টেলিজেন্স উইংয়ের মাধ্যমে এ খবর নিশ্চিত হওয়া মাত্র অভিযানে নামেন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। টানা কয়েক ঘণ্টার শ্বাসরুদ্ধকর অভিযান চালিয়ে ভারতে পালিয়ে যাওয়ার আগেই শেষমেষ শুক্রবার ভোর রাতে মোস্তাকিম রহমানকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়।

তিনি আরো জানান, গ্রেফতারকৃত মোস্তাকিম রহমান বগুড়া শহরের খান্দার বিলেরপাড়া এলাকার মৃত মহির উদ্দিনের ছেলে। ঘটনার কয়েকদিন আগে কাউন্সিলর মোস্তাকিম রহমানের নেতৃত্বে ৬-৭জন যুবক পাসপোর্ট অফিসে যায়। এসময় তারা এডি শাহজাহান কবিরকে বেশ কয়েকটি পাসপোর্ট করে দেওয়ার জন্য চাপ দেয়। এতে তিনি অপারগতা প্রকাশ করেন।

পরে মোস্তাকিমসহ অন্যরা অফিস থেকে বের হয়ে যায়। সেই ঘটনার জের ধরেই এডি শাহজাহান কবির ওপর সশস্ত্র হামলা চালানো হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মোস্তাকামি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আদালতে হাজির করে রিমান্ডে নেওয়া হবে। কাউন্সিলর মোস্তাকিম রহমানের বিরুদ্ধে এ পর্যন্ত চারটি মামলার তথ্য পাওয়া গেছে। আরও মামলা রয়েছে কী-না খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পাশাপাশি মামলাগুলোর বর্তমান অবস্থা কি সেটাও খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। এরমধ্যে একটি মারামারির, একটি অস্ত্র, একটি চাঁদাবাজির ও একটি হত্যা মামলা রয়েছে।

পুলিশ সুপার বলেন, এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার মামলার এজাহারনামীয় ৩জন ও সন্দিগ্ধ হিসেবে একজনকে গ্রেফতার করা হয়। তারা হলেন, শহরের মালগ্রাম এলাকার রমজান আলীর ছেলে হাসান আলী (৩৬), ঠনঠনিয়া হিন্দুপাড়ার আব্দুল কাদেরের ছেলে জীবন (২১), একই এলাকার আবু তালেবের ছেলে রাসেল মিয়া (৩০) ও মিলু। এদের মধ্যে একজন সরাসরি অপারেশনে অংশ নেয়। এজাহারনামীয় অপর দু’জন পাশেই দাঁড়িয়ে ছিলো বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নিশ্চিত হওয়া গেছে। মামলার বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরিফুর রহমান মন্ডল, সনাতন চক্রবর্তী, মকবুল হোসেনসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার দুপুরে বগুড়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক (এডি) শাহজাহান কবির নিজ অফিস থেকে বের হয়ে মেহেরপুরের গাংনিতে নিজ বাড়ি যাবার জন্য রিক্সাযোগে শহরতলী শাকপালা যাচ্ছিলেন। পতিমধ্যে কৈগাড়ি এলাকায় বিভাগীয় বন বিভাগের অফিসের সামনে কয়েকজন সশস্ত্র দুর্বৃত্ত তার গতিরোধ করে। এসময় তিনি কিছু বুঝে ওঠার আগেই দুর্বৃত্তরা রাম দা দিয়ে ডান পায়ে কোপ দেয়।

এসময় তিনি প্রাণ বাঁচাতে দৌড়ে বন বিভাগের অফিসের একটি কক্ষে ঢুকে দরজা লাগানোর চেষ্টা করলে দুর্বৃত্তরা লাথি দিয়ে দরজা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে কুপিয়ে চলে যায়। এসময় বন বিভাগের কর্মচারীরা এগিয়ে এলে তারা পালিয়ে যায়। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে এয়ার এম্বুলেঞ্চযোগে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়।

এঘটনায় বগুড়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের অফিস সহকারী শাজেনুর আলম বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার রাতে শাজাহানপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় ১১জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৪-৫জনকে আসামি করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আটক

নোয়াখালীতে ভুয়া ডাক্তার আটক

মুজাহিদুল ইসলাম  সোহেল, নোয়াখালী প্রতিনিধি  :: নোয়াখালীতে আবুল কাশেম (৩২) নামে ভুয়া ডাক্তারকে ...