ফাইনাল-দুঃখ ঘুচবে তো?

ষ্টাফ রিপোর্টার :: এশিয়ার ক্রিকেটে শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে শুক্রবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুবাইয়ে মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ ও ভারত। ম্যাচটি ঘিরে দুই দেশের ক্রিকেট ভক্তদের মাঝে রয়েছে বাড়তি উচ্ছ্বাস ও উন্মাদনা। কারণ ২০১৫ সালের বিশ্বকাপের পর থেকে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ মানেই অন্যরকম লড়াই।

এশিয়া কাপের ফাইনালে হারের পর বাংলাদেশ ক্রিকেট ভক্তদের মনের সেই ক্ষত এখন শুকিয়ে যায়নি। তবে হার জিত তো খেলার অংশ।

কিন্তু ১৫-এর ফাইনালে আম্পিয়ারিংয়ের ভুল সিদ্ধান্তেই শিরোপা হাত ছাড়া হয়েছিল এমনটাই মনে করেন বাংলাদেশিরা। সেই বিতর্কই হয়তো ভারত-বাংলাদেশের ম্যাচকে বাড়তি উন্মাদনা, উত্তেজনা দিয়েছে।

তিন বছর পর দুবাইয়ে তামিম-সাকিব ছাড়াই ফাইনাল খেলবে টাইগাররা। কল্পনার অতীত ছাড়া আর কী? তাঁদের ঘাটতি পূরণ হবার নয় স্বীকার করলেও শিরোপা হাতছাড়া করতে নারাজ মাশরাফি বাহিনী। মাশরাফি তো বলেই দিয়েছেন, শিরোপা তার জেতা হয়ে গেছে। তামিম যেভাবে ভাঙা আঙুল নিয়ে ব্যাট করেছে সেইটাকেই বড় প্রাপ্তি মনে করছেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক।

কিন্তু হাল ছাড়তে রাজি নন তিনি। মাশরাফি ঠাণ্ডা মাথায় বলেন, ‘আমার বিশ্বাস কোনো একদিন বাংলাদেশ পাবে। তরুণ প্রজন্ম, যারা ক্রিকেটের দিকে আসতে চাচ্ছে বা যারা দলে আছে বা যারা অনূর্ধ্ব-১৯ কিংবা অনূর্ধ্ব-১৬ খেলছে, একটা ট্রফিতে তারা আরও উজ্জীবিত হবে।’ এ যেন এক পা পিছিয়ে থেকে আক্রমণ করার বার্তা, মাশরাফির কথায় এমনটা ভাবলে ভুল কোথায়?

এদিকে বাংলাদেশ দলকে হাঁড়ে হাঁড়ে চিনেছেন রোহিত শর্মারা। তাই তো ভারতীয়রা সর্বোচ্চ সমীহই করছে টাইগারদের। দেশটির ওপেনার শিখর ধাওয়ান বলেন, ‘বাংলাদেশকে এখন হারানো কঠিন। অনেকবার তারা নিজেদের প্রমাণ করেছে। সময়ের সঙ্গে তারা অভিজ্ঞ খেলোয়াড় পেয়েছে। তারা খেলা বোঝে। কৌশল বোঝে। চাপের ভেতর কীভাবে খেলতে হয় সেটা জানে। বাংলাদেশকে তারা সহজভাবে নিচ্ছেন না।’

‘ফাইনালে আমরা আমাদের সর্বোচ্চটা দেয়ার চেষ্টা করবো। টুর্নামেন্টের প্রতিটি দল শক্তিশালী। অনেকেই ভেবেছিল ভারত-পাকিস্তান ফাইনাল হবে। কিন্তু দারুণ একটি ম্যাচ জিতে তারা এখানে এসেছে। আমরা বাংলাদেশকে সহজভাবে নিতে পারছি না।’

এবার এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট কোনো দলের মাথায় উঠবে তা জানতে আর কয়েক ঘণ্টার অপেক্ষা। আজকের ফাইনালটি একদিকে বাংলাদেশের জন্য প্রতিশোধের মোক্ষম সুযোগ অন্যদিকে শ্রেষ্ঠত্বের সম্মান ধরে রাখার যুদ্ধ টিম ভারতের সামনে।

বাংলাদেশ সময় বিকাল ৫ টা ৩০ মিনিটে দুবাই ইন্টারন্যাশন্যাল স্টেডিয়ামে খেলাটি শুরু হবে।

ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচ পরিসংখ্যান:

মুখোমুখি লড়াইয়ে সবশেষ পাঁচ ম্যাচের মধ্যে ৩টিতে ভারত ও ২টিতে বাংলাদেশ জয় পেয়েছে। আর বিভিন্ন দলের বিপক্ষে শেষ পাঁচ ম্যাচের মধ্যে ৪টিতে জয় ও ১টিতে ড্র করেছে ভারত। অপরদিকে বাংলাদেশ শেষ ৫ ম্যাচে ৩টিতে জয় ও ২টিতে হারের স্বাদ পেয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ছররা গুলিবিদ্ধ ব্যারিস্টার মাহবুবউদ্দিন খোকন

ছররা গুলিবিদ্ধ ব্যারিস্টার মাহবুবউদ্দিন খোকন

মুজাহিদুল ইসলাম সোহেল, নোয়াখালী প্রতিনিধি:: নোয়াখালীর সোনাইমুড়িতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সমর্থকদের ...