পুলিশ কর্মকর্তার স্ত্রীসহ জোড়া খুন

Jatrabariষ্টাফ রিপোর্টার :: রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর কলাপট্টি এলাকায় সাবেক এক পুলিশ কর্মকর্তার স্ত্রী ও গৃহকর্মীর মেয়েকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। প্রতিবেশী ও স্বজনদের অভিযোগ, পরিচিতজনরাই হয়তো ডাকাতির উদ্দেশ্যে এ জোড়া খুন করেছে। আর পুলিশ বলছে, তদন্তের পরই উন্মোচিত হবে হত্যার আসল রহস্য।

স্বামী অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার আব্দুল কুদ্দুসের মৃত্যুর পর স্ত্রী রওশন আরা যাত্রাবাড়ীর কলাপট্টি এলাকার তিনতলা এ বাড়ির ২য় তলায় বাস করতেন। পাঁচ ছেলে মেয়ের সবাই দেশের বাইরে থাকায় গৃহকর্মী লাকি ও তার মেয়ে কল্পনাকে নিয়েই তার সংসার।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় লাকি বাড়ির বাইরে থেকে ফিরে বৃদ্ধা রওশন আরা ও তার ১২ বছর বয়সী মেয়ে কল্পনাকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। পরে পুলিশে খবর দিলে ঘটনা জানাজানি হয়। প্রতিবেশী ও আত্মীয়দের দাবি পরিচিত কেউ ডাকাতির উদ্দেশ্যে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, পুলিশ কর্মকর্তার এলাকায় কারো সাথে শত্রুতা ছিলো না।  ডাকাতির উদ্দেশ্যে খুন হতে পারেন। তবে পুলিশ এ জোড়া খুনের বিষয়ে স্পষ্ট কোন তথ্য দিতে পারেনি।

ওয়ারী জোনের ডিসি এস.এম মোস্তাক আহমেদ খান বলেন, ‘এ হত্যাকাণ্ডের তদন্ত করা হচ্ছে।  কিছু আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে।  সেগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে। ‘

এ ঘটনায় নিহত কল্পনার মা লাকি আক্তারকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে। আর প্রাথমিক সুরতহালের পর লাশ ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয় মিডফোর্ড হাসপাতালের মর্গে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

নির্বাচনে বিদেশি পর্যবেক্ষক নেই কেন?

স্টাফ রিপোর্টার :: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদ বহাল রেখে নির্বাচন অনুষ্ঠিত ...