‘পাকিস্তানকে একঘরে করা হোক ‘

পাকিস্তানকে একঘরে করার অাহ্বান জানিয়েছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। সোমবার নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দফতরে ভাষণ দেওয়ার সময় তিনি এ আহ্বান জানান।

_susomaপ্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সুরেই সুর মেলালেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন,  পাকিস্তানকে কাশ্মীর দখলের স্বপ্ন ছাড়তে হবে। জম্মু-কাশ্মীর ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ ছিল, থাকবেও।

এ দিন সরাসরি নাম উচ্চারণ না করেই পাকিস্তানকে তুলোধুনো করেন সুষমা। তবে ‘সন্ত্রাসের মদতদাতা’ বলে যে রাষ্ট্রের কড়া সমালোচনা করেছেন, সেটা যে পাকিস্তানই, তা বুঝতে অসুবিধে হয়নি কারো। তিনি মনে করিয়ে দেন, আফগানিস্তানও জাতিসংঘে বলে গেছে, জঙ্গিরা কোথায় থাকে তা সকলেই জানে! তার দাবি, সন্ত্রাসকে লালন করা কিছু দেশের শৌখিনতা হয়ে দাঁড়িয়েছে। আন্তর্জাতিক মঞ্চে তাদের জায়গা থাকা উচিত নয়। বরং তাদের সরাসরি জঙ্গিবাদের মদতদাতা বলে চিহ্নিত করা দরকার। স্মরণীয়, পাকিস্তানকে এই তকমা দেওয়ার আর্জি নিয়ে ক’দিন আগে বিল এসেছে মার্কিন হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে। সুষমা যেন সেই ভাবনাকেই তাতিয়ে দিতে চাইলেন।

ভারত-পাক আলোচনা ঠাণ্ডা ঘরে চলে যাওয়ার নালিশ নিয়েও ইসলামাবাদকে তুলোধনা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, “নওয়াজ শরিফ এই মঞ্চে বলে গিয়েছেন, ভারত এমন সব শর্ত দিচ্ছে যা মানা সম্ভব নয়। তিনি কোন শর্তের কথা বলছেন?” সুষমার বক্তব্য, “মোদির শপথগ্রহণে শরিফকে আমন্ত্রণ করা হয়েছিল। লাহৌরে গিয়ে শরিফের সঙ্গে দেখা করে এসেছিলেন মোদি। এগুলি কোন শর্তের ভিত্তিতে করা হয়েছিল?”

সুষমার দাবি, মোদি সরকার গত দু’বছরে পাকিস্তানের সঙ্গে অভূতপূর্ব মৈত্রীর পরিবেশ তৈরি করেছিল। কিন্তু তার বদলে পঠানকোট-উরির হামলা, বাহাদুর আলির মতো জঙ্গিকে পেল ভারত। তিনি বলেন, “আমরা শর্ত চাপাচ্ছি, নাকি আপনারা মানসিকতা বদলাচ্ছেন?” পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পর তাকে টুইট বার্তার মাধ্যমে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

অসহায় মানুষদের সেবা করবে কানেকটিকাট বাংলাদেশ সোসাইটি

অসহায় মানুষদের সেবা করবে কানেকটিকাট বাংলাদেশ সোসাইটি

বাংলা প্রেস, নিউ ইয়র্ক থেকে :: দেশ ও প্রবাসে দুস্থ, অসহায় মানুষের ...