পাইকগাছায় প্রতি দু’হাজার মানুষের নিরাপত্তায় একজন পুলিশ

মহানন্দ অধিকারী মিন্টু।

[poooপাইকগাছা (খুলনা: খুলনা জেলার পাইকগাছা পৌরসভা ও উপজেলায় প্রতি দু’হাজার মানুষের নিরাপত্তায় একজন করে পুলিশ রয়েছে। অপরাধ দমনের ক্ষেত্রে প্রায় তিন লাখ মানুষ অধ্যুষিত পাইকগাছায় পুলিশের বরাদ্দ চাহিদার তুলনায় একেবারেই নগণ্য। স্বল্প সংখ্যক পুলিশ সদস্য অপরাধ দমনে তথা উপজেলার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে রীতিমত হিমশিম খাচ্ছে। ২০১০ সালে অনুষ্ঠিত সর্বশেষ আদমশুমারী অনুযায়ী এই উপজেলায় লোকসংখ্যা প্রায় তিন লাখ। এরপর উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে জনসংখ্যা। ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার সাথে তাল মিলিয়ে এখানে পুলিশী জনবল বাড়ানোর কোনো উদ্যোগ না নেয়ায় মাঝে মধ্যে অবনিত ঘটছে আইন-শৃঙ্খলার। পৌরসদরে অবস্থিত সিনিয়র সহকারী জজ আদালত, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতসহ অনেক গুরম্নত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান। ইতিমধ্যে আদালতের সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার জন্য থানা পুলিশকে চিঠি দেয়া হয়েছে। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের তুলনা সহকারী মুহাঃ শামসুজ্জামান বলেন, গত ২০ জুলাই ৪৫১নং স্মারকে প্রেরিত চিঠিতে বলা হয়েছে, অত্রাদালতে খুন, ডাকাতি, দস্যুতাসহ বিভিন্ন ধরণের জঙ্গি সংশিস্নষ্ট একাধিক মামলা পেন্ডিং রয়েছে। তাছাড়া দেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটে কতিপয় দুস্কৃতকারী কর্তৃক বড় ধরনের নাশকতাসহ বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির আশংকা রয়েছে। এমতাবস্থায় উপজেলার অতীব গুরম্নত্বপূর্ণ স্থাপনা অত্র কোর্ট প্রাঙ্গনসহ আমার (বিচারকের) বাসভবনে অতিরিক্ত নিরাপত্তা বৃদ্ধিসহ সর্বদা সতর্ক থাকা অতীব আবশ্যক।

থানাসূত্র জানায়-চলতি বছর পহেলা জানুয়ারী থেকে ১৯ জুলাই পর্যনত্ম সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামীসহ ৭১০ জন অপরাধীকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময়ের মধ্যে থানায় মামলা হয়েছে ১৭৪টি। উদ্ধার করা হয়েছে সাড়ে তিন কেজি গাঁজা, ৭০ পিস ইয়াবা, ৪টি ককটেল ও ১০১ বোতল ভারতীয় ফেনসিডিল।

সূত্রমতে (ডিপি)-পাইকগাছা থানা এবং থানার অধীনে ক্যাম্প ও ফাঁড়িতে বর্তমানে অফিসার ও কনস্টেবল মিলিয়ে ১৫৩ জন কর্মরত রয়েছৈন। এর মধ্যে থানা ২জন পরিদর্শক (ওসি), ৭ জন উপ-পরিদর্শক, ১০ জন সহকারী উপ-পরিদর্শক ও ৪৪ জন কনস্টেবল। এছাড়া কপিলমুনি পুলিশ ফাঁড়ি, দেলুটীর বিগরদানা ক্যাম্প, হরিঢালী ক্যাম্প, রাড়ুলীর বাঁকা ক্যাম্প ও গড়ইখালীর ৯০ জন পুলিশ, এর মধ্যে ১১ জন অফিসার ও বাকিরা কনস্টেবল। উপরোক্ত হিসাবমতে পাইকগাছা বর্তমানে র্করত পুলিশ ফোর্সের সংখ্যা মাত্র ১৫৩ জন। প্রায় ৩ লাখ লোক অধ্যুষিত এই থানায় এত স্বল্প সংখ্যক পুলিশের কারনে অপরাধ দমনে বার বার হোচট খাচ্ছে পুলিশ বাহিনী। কেননা চলতি বছরের সাড়ে ৬ মাস অতিবাহিত হলেও থানায় একটিও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মারম্নফ আহম্মদ নিরাপত্তা সংক্রানত্ম আদালতের চিঠি প্রাপ্তির কথা স্বীকার করে জানান, আদালতের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শিশু অধিকার বিষয়ক সংসদীয় ককাস’র সাথে এএসডির মতবিনিময়

শিশু অধিকার বিষয়ক সংসদীয় ককাস’র সাথে এএসডির মতবিনিময়

স্টাফ রিপোর্টার :: শিশু অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে শিশু অধিকার বিষয়ক সংসদীয় ককাস ...