নেশার ছোবলে বিক্ষত যৌবন!

কথায় আছে, নেশার পয়সা ভূতে জোগায়। তবে নেশাগ্রস্ত মাত্রেই জানবেন, এমনটা মোটেই হয় না। নেশার টাকা জোগার করতে মানুষ এমন বহু কাজ করতে দুই বার ভাবে না, যা সুস্থ মস্তিস্কে ভাবাটা কঠিন।

কেউ চুরি করেন, কেউ ডাকাতি করেন, কেউ বা নিজের শরীর বেচেন। এমনই সর্বনাশা নেশার পাল্লায় পড়ে এক হলিউড অভিনেত্রী নিজের শরীর পর্যন্ত বেচতে দ্বিধা করেননি। গেম অফ থ্রোন্স-এর মেরির ভূমিকায় অভিনয় করা জোসেফিন গিলান নিজের জীবন সম্পর্কে কথা বলেত গিয়ে এমন কথাই জানিয়েছেন। ভারতীয় বেশ কিছু গণমাধ্যম এমন খবর প্রকাশ করেছে।

তিনি জানান, ছোট বয়স থেকে কোকেনের নেশার বুঁদ হয়ে ছিলেন। তবে বাড়ির অবস্থা ভালো না থাকায় তাঁকে অন্য রাস্তার কথা ভাবতে হয়। বিকল্প রাস্তা হিসাবে নিজের শরীর বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নেন। পরে ধীরে ধীরে পর্ন ইন্ডাস্ট্রিতে সোফি ও ব্রায়েন ছদ্মনামে অভিনয় করা শুরু করেন। ইন্টারনেটে একটি বিজ্ঞাপন তাঁর জীবনের গতি প্রকৃতি সম্পূর্ণ অন্য খাতে বইয়ে দেয়।

গিলান বলেন, ‘এক দিন ইন্টারনেট ঘাঁটতে গিয়ে একটি বিজ্ঞাপনে চোখ পড়ে। তাতে লেখা ছিল, অভিনেত্রী দরকার যার প্রাকৃতিক স্তন রয়েছে এবং যাঁর গায়ে কোনও ট্যাটু নেই। দ্বিতীয় শর্ত ছিল, নগ্ন শ্যুটে কোনও আপত্তি থাকলে আবেদন করার প্রয়োজন নেই। আমি তত্ক্ষতণাত্‍ আবেদন করে আমার একটি ছবি পাঠাই। দিন কতক বাদে রিপ্লাই পাই, আমাকে তাঁদের পছন্দ হয়েছে এবং অবিলম্বে যোগাযোগ করতে হবে। বাকিটা তো ইতিহাস।’

বিজ্ঞাপনটি ছিল গেম অফ থ্রোন্স সিরিজের পক্ষ থেকে। এর দ্বিতীয় সিজন থেকে ক্রমাগত ষষ্ঠ সিজনে অভিনয় করেছেন জোসেফিন। সপ্তম সিজনেও তিনি থাকবেন। তিনি বলেন, ‘আমি ভেবেছিলাম অভিনয় দেখানোর সুযোগ পাব। কিন্তু এই সিরিজ আমার জীবন এমনভাবে পাল্টে দেবে আমি কোনও দিনও ভাবিনি।’ গেম অফ থ্রোন্স ছাড়াও হলিউডের ২টি সিনেমাতেও অভিনয় করেছেন গিলান।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শরীর নিয়ে হেনস্তার শিকার হয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কাও!

বলিউডের সীমানা ছাড়িয়ে তার খ্যাতি এখন আন্তর্জাতিক আঙিনায়। তাতে কি, অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা ...