নারী উন্নয়নে বরাদ্দ ১ লাখ ১২ হাজার কোটি টাকা

নারী উন্নয়নে বরাদ্দ ১ লাখ ১২ হাজার কোটি টাকাস্টাফ রিপোর্টার :: ৪০টি মন্ত্রণালয় থেকে ৪৩টি মন্ত্রণালয়ে বর্ধিত করে ঘোষিত হয়েছে ২০১৭-১৮ অর্থবছরের জেন্ডার বাজেট। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে নারী উন্নয়নে বরাদ্দ হয়েছে এক লাখ ১২ হাজার ১৯ কোটি টাকা। যা মোট বাজেট বরাদ্দের ২৭.৯৯ শতাংশ এবং জিডিপির ৫.০৪ শতাংশ।
৪৩টি মন্ত্রণালয় ও বিভাগের নারী উন্নয়নে গৃহীত নীতি, কৌশল, কার্যক্রম, নারী উন্নয়নে প্রধান নির্দেশক অর্জন এবং বাজেটের কত অংশ নারী উন্নয়নে ব্যয় হবে তা বিস্তারিত উল্লেখ করে বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে পৃথক জেন্ডার বাজেট উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

বাজেট বিশ্লেষণে দেখা যায়, নারী উন্নয়নে পূর্ববর্তী বছরের তুলনায় বরাদ্দ বেড়েছে। গত ৬ বছরে বার্ষিক গড়ে বাজেট বৃদ্ধি পেয়েছে ১৮ শতাংশ। আর মোট জাতীয় বাজেট বরাদ্দের তুলনায় নারী উন্নয়ন বরাদ্দ হয়েছে গড়ে প্রায় ২৭ শতাংশ।

২০০৯-১০ অর্থবছরে নারী উন্নয়নে মোট বাজেট বরাদ্দ ছিল ২৭ হাজার ২শ ৪৮ কোটি টাকা। যা ২০১৬-১৭ অর্থবছরে বৃদ্ধি পায় ৯২ হাজার ৭শ ৬৫ কোটি টাকায়; যা ছিল মোট বাজেট বরাদ্দের ২৭ দশমিক ৫ শতাংশ এবং জিডিপির ৪ দশমিক ৭৩ শতাংশ।

গত ২০০৯-১০ অর্থবছরে চারটি মন্ত্রণালয়ের জেন্ডার বাজেট প্রতিবেদন প্রণীত হয়। বর্তমান অর্থবছরে ৪৩টি মন্ত্রণালয় ও বিভিন্ন বিভাগের নারী উন্নয়ন ও বাজেট বরাদ্দের পর্যালোচনা করে জেন্ডার বাজেট প্রতিবেদন প্রস্তুত করা হয়েছে।

মন্ত্রণালয় এবং বিভাগসমূহের মধ্যে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়, কৃষি মন্ত্রণালয় এবং পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের মোট বাজেটের একটি বৃহত্ অংশ নারী উন্নয়নে ব্যয় হয়ে থাকে।

বাজেট প্রতিবেদনে উপস্থাপিত ৪৩ মন্ত্রণালয় ও বিভাগকে তিনটি গুচ্ছে ভাগ করা হয়েছে। এগুলো হলো নারীর ক্ষমতায়ন ও সামাজিক মর্যাদা বৃদ্ধি, উত্পাদনক্ষমতা বৃদ্ধি এবং শ্রমবাজার ও আয়বর্ধক কাজে নারী অধিকতর অংশগ্রহণ এবং সরকারি সেবা প্রাপ্তিতে নারীর সুযোগ বৃদ্ধি।

জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়নে অভীষ্টসমূহ প্রণয়নে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল বিশ্বে পক্ষ হতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। মোট ১৭টি অভীষ্টের মধ্যে ১১টি অভীষ্টের ধারণা বাংলাদেশ দিয়েছে।

এসডিজির ৫ নং অভীষ্ট হলো ‘জেন্ডার সমতা অর্জন এবং সকল নারীর ক্ষমতায়ন’। এটি অর্জনে ৯টি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। জেন্ডার গ্লোবাল গ্যাপ সূচক ২০১৬ অনুযায়ী বাংলাদেশের অবস্থান ৭২। ভারত, শ্রীলঙ্কা, পাকিস্তান প্রভৃতি দেশ থেকে বাংলাদেশ এগিয়ে আছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আমরা নির্বাচন বয়কট করবো না: ড. কামাল

স্টাফ রিপোর্টার :: জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন ...