দেশের প্রথম ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার চালু হতে যাচ্ছে

দেশের প্রথম ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারষ্টাফ রিপোর্টার :: ২০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত দেশের প্রথম ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার উদ্বোধনের জন্য এখন পুরোপুরি প্রস্তুত। বিশ্ববাজারে বাংলাদেশকে ব্র্যান্ডিংয়ের লক্ষ্য নিয়ে বর্ণিল অনুষ্ঠানমালায় আগামী ৩০ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগ্রাবাদ বাণিজ্যিক এলাকায় এই সেন্টারের উদ্বোধন করবেন।
৭৫ কাঠা জমির ওপর নির্মিতব্য ২৪ তলাবিশিষ্ট ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের ২০ তলা পর্যন্ত নির্মাণ কাঠামো ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। ১০ তলা পর্যন্ত অবকাঠামো নির্মাণের কাজ শেষের দিকে। এই সেন্টারে থাকছে ৫ কোটি টাকায় নির্মিত বাংলাদেশের রপ্তানিপণ্যের বিশালাকারের প্রদর্শনী কেন্দ্র। দেশের ১৩৮টি রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানের উৎপাদিত পণ্যের প্রদর্শনী থাকবে এই কেন্দ্রে।

ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার এবং চট্টগ্রাম চেম্বারের শতবর্ষ উদযাপন কমিটির চেয়ারম্যান এমএ লতিফ জানান, বিশ্ব বাণিজ্য কেন্দ্র বাংলাদেশের ম্যাজিক অর্থনীতিকে বিশ্ববাজারে তুলে ধরবে। ইতোমধ্যে সেন্টারের সব অবকাঠামো তৈরি হয়ে গেছে। ৫টি কনফারেন্স হলের মধ্যে একটি হলের নামকরণ করা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু কনভেনশন সেন্টার’। এখন থেকে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের ব্যবসায়ীরা এক ছাদের নিচেই যাবতীয় ব্যবসায়িক সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন। প্রদর্শনী কেন্দ্র পরিদর্শন করে যে কোনো বিদেশি ক্রেতা ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের হেলিপ্যাড থেকে সরাসরি রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানের কারখানায় যেতে পারবেন। এর ফলে ওই ক্রেতাকে রাস্তার যানজটের বিড়ম্বনাসহ অন্য কোনো সমস্যায় পড়তে হবে না।

এমএ লতিফ বলেন, “আমরা ব্যবসা-বাণিজ্যেও হাজার বছরের ঐতিহ্যের ধারক। সাড়ে ৩০০ বছর আগে চট্টগ্রামে তৈরি জাহাজ ‘ফ্রিগেট অব ডয়েজল্যান্ড’ এখনো জার্মানির জাদুঘরে শোভা পাচ্ছে। এই ঐতিহ্যকে তুলে ধরতে চট্টগ্রাম বন্দরে তিনটি বিশেষ জাহাজ আকর্ষণীয়ভাবে প্রদর্শন করা হবে।”
এছাড়া ৫ দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়েছে। কর্মসূচি শুরু হবে ২৭ জানুয়ারি, ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে। ২৮ জানুয়ারি লাইট অ্যান্ড সাউন্ড শো হবে পোর্ট স্টেডিয়াম থেকে আগ্রাবাদ পর্যন্ত। ৩০ জানুয়ারি বিকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের উদ্বোধন করবেন। ৩১ জানুয়ারি সকালে র‌্যাডিসন বস্নু হোটেলে আন্তর্জাতিক বিজনেস কনফারেন্স ও বিকালে ইয়ুথ কনফারেন্স, ১ ফেব্রুয়ারি রাঙামাটির আরণ্যক কটেজে ইন্টারন্যাশনাল ট্যুরিজম সামিট এবং ২ ফেব্রুয়ারি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন থাকবে।
Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

‘রামগতি উৎসব’

পারস্পরিক ভালোবাসার অনুপম দৃষ্টান্ত হয়ে রইল ‌‘রামগতি উৎসব’

সুলতান মাহমুদ আরিফ :: উৎসাহ, উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে শুক্রবার (২১ সেপ্টেম্বর) সফলতার সাথে ...