দলকানা মনোভাব এবং ছাত্রসমাজ

দলকানা_মনোভাব_এবং_ছাত্রসমাজ।

মুহাম্মদ তুহিন ফারাবী :: পুর্ব নির্ধারিত সময়সূচী অনুযায়ী মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ এর মুজাফফর অাহমেদ চৌধুরী মিলনায়তনে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ কতৃক অায়োজিত সকল রাজনৈতিক দলের উদ্দেশ্যে তারুণ্যের ইশতেহার ভাবনা-২০১৮ এর অায়োজন করা হয়েছিল।

তার-ই অালোকে মঙ্গলবার ১১,০০০/= টাকা দিয়ে অডিটোরিয়াম ভাড়া করা হয়। কিছুদিন অাগের অামাদের মিলনমেলার মতোই প্রোগ্রাম করতে গিয়ে দেখি তালা মারা। জানতে চাইলে ঢাবি প্রশাসন জানায় প্রোগ্রাম করতে পারবো না। অাশ্চর্য্য হয়ে যাই যে অামরা কোন দেশে বসবাস করতেছি। যে সাধারণ ছাত্ররা স্বাধীন দেশে স্বাধীনভাবে একটা ছাত্রদের অধিকার নিয়ে কথা বলার সুযোগ পাবেনা।

এই দলকানা চিন্তাভাবনা থেকে রাষ্ট্রের নীতিনির্ধারক গন এবং সকল প্রশাসনিক কর্মকর্তাদেরকে বেরিয়ে অাসতে অাহ্বান জানাই।

কাম টু দ্যা পয়েন্ট, অডিটোরিয়ামে প্রোগ্রাম করতে না পেরে অামরা অডিটোরিয়াম গেইটে প্রোগ্রাম করতে বাধ্য হই। প্রোগ্রাম শেষে অামাদের কেন্দ্রীয় কমিটির ২টি প্রতিনিধিদল রাজনৈতিক দলগুলোর নিকট ইশতেহার পৌঁছে দেয়ার জন্য মাঠে নামি, তারই অংশ হিসেবে অামি (মুহাম্মদ তুহিন ফারাবী) নুরুল হক নুর, রাশেদ খান সহ কেন্দ্রীয় ২২জন যুগ্ম-অাহ্বায়ক সহ ২৩সদস্যের প্রতিনিধিদল মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে জনাব ওবায়দুল কাদের সাহেবের নিকট ইশতেহার এর একটি সফট কপি পৌঁছে দিতে ধানমন্ডীতে যাই। প্রায় ৫ঘন্টা অপেক্ষা করার পর মাননীয় সেতু মন্ত্রীর নিকট অানুষ্ঠানিক ভাবে ইশতেহার হস্তান্তর করি।

২য় প্রতিনিধিদল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির প্রধান কার্যালয়ে রুহুল কভীর রিজভী সাহেবের নিকট হস্তান্তর শেষে জাতীয় পার্টি, ইসলামী জোট,সহ বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দলের নিকট হস্তান্তর করেন।

অতীব দুঃখজনক বিষয় হচ্ছে বাংলাদেশের নোংরা রাজনীতি এমন পর্যায়ে চলে গিয়েছে যে বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব ছাত্রদের অরাজনৈতিক দাবীগুলোকে নিয়ে রাজনীতির নোংরা খেলায় মেতে উঠেছেন। যা ছাত্রসমাজের জন্য অাক্ষেপ ও হতাশার বিষয়।

অামরা ছাত্রসমাজ কারো তাবেদারী করিনা, অামরা সারধারণ ছাত্রদের অধিকার নিয়ে সর্বদা সোচ্চার। মাননীয় সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাহেবের নিকট অামরা অামাদের উপর ভিত্তিহীন মামলা গুলো প্রত্যাহার এর অাবেদন জানালে তিনি অামাদেরকে অাশ্বস্ত করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও অাইজিপি মহোদয় এর সাথে কথা বলে অতিদ্রুত সকল মামলা প্রত্যাহার করবেন। এবং অামাদের দাবী গুলোর সাথে একাত্মতা পোষণ করেছেন। অামরা ছাত্রসমাজ এর প্রতিফলন দেখতে চাই।

 

 

লেখক : যুগ্ম-অাহ্বায়ক, কেন্দ্রীয় কমিটি। বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

হুমায়ূন আহমেদ?

কতটা অতীত হুমায়ূন আহমেদ?

আরিফ চৌধুরী শুভ :: প্রতিটি ভোরে সূর্য ওঠে স্বপ্ন নিয়ে। প্রতিটি দিনে ...