Home / এনজিও / তিন শতাধিক পথশিশুর জন্মদিন উদযাপন

তিন শতাধিক পথশিশুর জন্মদিন উদযাপন

তিন শতাধিক পথশিশুর জন্মদিন উদযাপনঢাকা :: সমাজের নিচু শ্রেণী থেকে উঠে আসা এই শিশুরা শৈশবের আনন্দ থেকে সবসময় বঞ্চিত। অধিকাংশ শিশুরই তাদের জন্মদিন সর্ম্পকে কোন ধারণা নেই এবং তারা কখনোই  জন্মদিনের অনুষ্ঠান পালন করেনি। মাস্তুল ফাউন্ডেশন তাঁদের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে সবসময় ও সচেতনতায় সবার আগে এই স্লোগান নিয়ে সমাজের সুবিধাবঞ্চিত এসকল শিশুদের অধিকার আদায় নিয়ে গত ৩ বছর ধরে কাজ করে আসছে।

৪ ডিসেম্বর , সোমবার মাস্তুল ফাউন্ডেশন রাজধানীর রবীন্দ্র সরবোর এ উপলক্ষ্যে ফুচকা বিলাস নামে একটি ভিন্নধর্মী অনুষ্ঠান এর আয়োজন করে যাতে প্রায় তিন শতাধিক সুবিধাবঞ্চিতশিশুর একযোগে জন্মদিন ঘটাকরে পালন করে।

এই আয়োজন এ মাস্তুল এই শিশুদের সাথে কেক কেটে এবং তাদের মাঝে উপহার বিতরণ করে তাদের জন্মদিন পালন করে, যা  এই সব পথশিশুদের মুখে হাঁসি ফোটায়। জন্মদিনের উপহার হিসেবে প্রতিটি শিশুর হাতে তুলে দেয়া হতে সুন্দর সুন্দর খেলনা। সারাদিনব্যাপী ছিল শিশুদের জন্য বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা ক্যাম্প যেখানে শিশুরা চোখ, নাক, কান দাঁত এর স্বাস্থ্যসেবা নিয়েছে।

এছাড়াও শিশুদের মাঝে ছবি আকার প্রতিযোগিতা ও খেলাধুলার আয়োজন করা হয়। শিশুদের বিনোদন এর জন্য ম্যাজিক শো, পাপেট শো এর আয়োজন করা হয়। নামকরা শিল্পী পারভেজ সাজ্জাদ ও মিনার রহমান, দূরবীন ব্যান্ডের শহিদ, রাজত্ব ব্যান্ডের তৌফিক আহমেদ ও ফয়সাল রদ্দি।

তিন শতাধিক পথশিশুর জন্মদিন উদযাপনমাস্তুল এর এবার এর ফুচকা বিলাস এর মূল স্লোগান ছিল ‘শিক্ষা থেকে ঝড়বে না আর কোন শিশু’ । এই স্লোগান নিয়ে মাস্তুল ফাউন্ডেশন এর তরুণ স্বেচ্ছাসেবীরা  এ সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মাঝে দাড়িয়েছে। এই আয়োজন এর মধ্য দিয়ে মাস্তুল সমাজের সুবিধাবঞ্চিত ও পড়তে ইচ্ছুক শিশুর শিক্ষা অর্জনের অধিকার আদায়ের পথে নতুন উদ্যমে কাজ শুরু করেছে।

স্বেচ্ছাসেবীরা সকাল থেকে ধানমন্ডির বিভিন্ন স্থান থেকে পথশিশুদের সংগ্রহ করে রবীন্দ্র সরবোর এ একত্রিত করে। এরপর শিশুদের মাঝে ইউরো ফুডস এর সৌজন্যে খাবার বিরতণ করা হয়। এসময় স্বেচ্ছাসেবীরা ও শিশুরা পুর লেক জুড়ে বেলুন আর কার্টুন দিয়ে সাঁজায়।

ঘড়িতে যখন ৪ টা বেজে ১৫ মিনিট সব শিশুরা মাথায় টুপি নিয়ে মঞ্চে উপস্থিত। তাঁদের মধ্যে কনিষ্ঠরা তাঁদের সকলের পক্ষ হতে কেক কেটে জন্মদিন পালন করে। শুভ জন্মদিনের গানে পুরো সরোবর মেতে ছিল।

‘সকল পথশিশুকে বিদ্যালয়ে পাঠানোর যে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে এটি সফল করতে আমাদের সম্মিলিতভাবে কাজ করতে হবে’ বলে জানান, আয়োজক সংস্থার প্রধান কাজী রিয়াজ রহমান।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

জরুরি সেব‘৯৯৯’র উদ্বোধন করলেন জয়

জরুরি সেবা ‘৯৯৯’র উদ্বোধন করলেন জয়

স্টাফ রিপোর্টার :: প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ...