তিন লাখ টাকায় প্রসূতির মৃত্যু ধামাচাপা

তিন লাখ টাকায় প্রসূতির মৃত্যু ধামাচাপাতন্ময় ভৌমিক, নওগাঁ প্রতিনিধি :: নওগাঁ সদর উপজেলার নওগাঁ-সান্তাহার রোডের রেজিষ্ট্রশন বিহীন ডা: সুলতানা জাহান ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জহুরা বেগম (২২) নামে এক প্রসূতির মারা গেছে।

মারা যাওয়ার পর স্থানীয় চেয়ারম্যান ও প্রভাবশালী নেতার নেতৃত্বে নওগাঁ সদর থানার এসআই আব্দুল মান্নান তিন লাখ টাকায় ঘটনার ধামাচাপা অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নিহত জহুরা বেগম নওগাঁ সদর উপজেলার নতুন শাহাপুর গ্রামের মিঠুর স্ত্রী।

জানা গেছে, মঙ্গলবার সকালে প্রসূতি জহুরা বেগমের নিয়ে যাওয়া হয় ওই ক্লিনিকে। সন্ধ্যার দিকে ওই ক্লিনিকের মালিক ডা: সুলতানা জাহান সিজার করলে জহুরা বেগম মারা যায়।

সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নেয়ার চেষ্টা করেন।

এ সময় স্থানীয় বোয়ালীয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমেদ ও এক বিএনপির প্রভাবশালী নেতার নেতৃত্বে নেতৃত্বে এসআই আব্দুল মান্নানের দফায় দফায় বৈঠক শেষে তিন লাখ টাকায় বিষয়টি ধামাচাপা দেয়া হয়।

বায়ালীয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমেদ জানান, মারা যাওয়ার ঘটনায় নিহত জহুরা বেগমের স্বামী মিঠু তিন লাখ টাকা দিয়ে আপোষ করা হয়েছে। তবে তিনি রেজিষ্ট্রেশন বিহীন এই ক্লিনিক ও ডাক্তারের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানান।

এসআই আব্দুল মান্নান জানান, জহুরা বেগম মারা যাওয়ার ঘটনায় কোন বাদি না থাকায় লাশ নিহতের পরিবাকে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে তিন লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার ব্যাপারে কোন কথা বলতে রাজি হননি।

নওগাঁ সদর মডেল থানার ওসি জাকিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, প্রসূতির মারা যাওয়ার ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নওগাঁ সিভিল সার্জন মোজাহার হোসেন বুলবুল জানান, জহুরা বেগম মারা যাওয়ার ঘটনাটি জানা গেছে। বুধবার সকালে ওই রেজিষ্ট্রিশন বিহীন ক্লিনিক পরিদর্শন করে সিল গালাসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করা হবে।

 

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

গণধর্ষণের শিকার কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

স্টাফ রিপোর্টার :: পাবনা জেলার সুজানগরে গণধর্ষণের শিকার এক কলেজছাত্রী অপমান সইতে ...