ঢাকায় নতুন আলো

রাতের ঢাকায় আলোর বন্যাষ্টাফ রিপোর্টার :: রাতের ঢাকায় হঠাৎ আলোর বন্যা। ছিল সোডিয়াম লাইট, এখন এলইডি। রাতের অন্ধকার ভেদ করে রাজপথের সেই আলোতে আলোকিত আশপাশের অলিগলিও। ঝকঝকে আলোয় ফুটে উঠেছে এক কিলোমিটার সড়ক।

রাজধানীর কারওয়ানবাজার থেকে শাহবাগ যেতে আলোর এই ছন্দবদল চোখে পড়বে। সোডিয়াম বাতির আলো-অাঁধারির পর ঠিক প্রজাপতি ফোয়ারা ছাড়িয়ে চোখে পড়বে এলইডি বাতির আলোর বন্যা। যা বিস্তৃত হয়েছে শাহবাগ পর্যন্ত।

একুশে ফেব্রুয়ারির আগেই শহীদ মিনার এলাকা পর্যন্ত আলো পাল্টে দেয়ার কথা রয়েছে। ওদিকে মৎস্যভবন পর্যন্তও সোডিয়াম আলো পাল্টে এই এলইডি বাল্ব বসানো হবে।

আশির দশকের শেষভাগে ঢাকার প্রধান প্রধান সড়কে যে সোডিয়ামের হলুদ আলো এনে দিয়ে রাতের ঢাকাকে মাদকতায় পূর্ণ করে দিয়েছিলেন সে সময়ের রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। সেই আলো হটিয়ে এবার অপেক্ষাকৃত সাশ্রয়ী, আর বেশি আলোর এলইডি বসছে সড়ক বাতি হিসেবে।

দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনের উদ্যোগেই এই পরিবর্তন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকেই এই সাদা আলো দেখতে পাচ্ছেন রাজধানীর ওই এলাকায় পথচলা মানুষ।

ওইদিন সকাল থেকে সড়কের বাতিগুলো পরিবর্তনের কাজ শুরু করে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কর্মীরা। কর্মীদেরই একজন জানান, মেয়রের নির্দেশে এই আলো পাল্টে দেয়া হচ্ছে। বললেন, এলইডি অপেক্ষাকৃত সাশ্রয়ী। আর আলো বেশি দেয়।
প্রাথমিকভাবে সোনারগাঁও হোটেলের মোড় থেকে এই আলো বসানো হবে মৎস্যভবন পর্যন্ত। মোট দুই হাজার বাল্ব বসছে বলেও জানালেন তিনি। এ ছাড়া একুশে ফেব্রুয়ারির আগেই ওই এলাকার বাল্ব পাল্টে দেয়ার নির্দেশনা রয়েছে।

শুক্রবার রাতের ঢাকায় গিয়ে দেখা ল্যাম্প পোস্টের সাদা আলোয় মোড়ে মোড়ে জটলা একটু বেশিই। যেন আলো উপভোগ্য হয়ে উঠেছে রাতের ঢাকায়। সাদা আলোর রশ্মি কুয়াশা ভেদ করেও যাচ্ছে বহুদূর।

এক কিলোমিটার বা তারও বেশি পথ; সোনারগাঁও মোড় থেকে শাহবাগ। পুরো পথটাই এলইডি লাইটের আলোকচ্ছটায় ভরা। দিনের আলোর সঙ্গে পার্থক্য করাটা বেশ কঠিন।

এক অটোরিকশা চালকের ভাষ্য, এই আলোটা গাড়ি চালানোর জন্য বিপদের কারণও হতে পারে।

মিজানুর রহমান নামে ওই চালক বলেন, ওপরে সাদা আলো, গাড়ির লাইটও সাদা। দ্রুতগতিতে গাড়ি এলে গাড়ির লাইট বোঝাটা কঠিন হতে পারে। এরই মধ্যে তিনি এই সমস্যায় পড়েছেন কিনা? জানতে চাইলে অবশ্য বললেন, সমস্যা হয়নি। আর মিজানুরের কথায় একমত হলেন না অন্যরাও।

বৃহস্পতিবার ল্যাম্প পোস্টের দুই পাশের সোডিয়াম লাইট খুলে এসব লাইট ইমিটিং ডায়ট বা এলইডি বাতি লাগানো হয়।
এলইডি বাতির আলোতে শাহবাগে একপাশে বারডেম হাসপাতাল, অন্য পাশে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় আলোকিত হয়ে উঠেছে। দুই ধারে দাঁড়ানো অ্যাম্বুলেন্স, রিকশা আর আটোরিকশা চালকরাও উপভোগ করছেন সাদা আলো।
শাহবাগ মোড়ের ফুলের দোকানগুলোও সাদা আলোয় আরো বেশি উজ্জ্বল। সেখানে ফুটপাতের এক চা বিক্রেতা রবিউল জানান, এখানে শুক্রবার এই বাতি জ্বালানো হয়েছে। আগে অন্ধকার থাকলেও এখন জায়গাটা আলোকিত।

গত ৩০ জানুয়ারি ‘পরিচ্ছন্ন বছর-২০১৬’ বিষয়ক এক কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে তিনি জানান, রাজধানীতে ৩২ হাজার স্ট্রিট লাইট রয়েছে। এগুলো পাল্টে এলইডি লাইট লাগানো হবে।
মেয়র বলেন, যাতে কোনো রাস্তায় অন্ধকার না থাকে, পুলিশ সদস্যদের দায়িত্ব পালন করতে কোনো অসুবিধা না হয় এবং নাগরিকরাও যাতে নিশ্চিন্তে চলাচল করতে পারেন সে কারণেই এসব বাল্ব পাল্টে দেয়া হবে।

মেয়র সাঈদ খোকন সেদিন আরো বলেন, বইমেলাসহ এর আশপাশের এলাকায় ১ ফেব্রুয়ারির আগেই পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা করে দেয়া হবে। ২১ তারিখের আগে শহীদ মিনারের লাইট পাল্টে নতুন এলইডি লাইট লাগানো হবে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শিবগঞ্জের জঙ্গি আস্তানা

শিবগঞ্জের জঙ্গি আস্তানা থেকে চারজনের মরদেহ উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার :: চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবপুর উপজেলার শিবনগর গ্রামে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে একটি ...