টাইগারদের টার্গেট ১৬৭ রান

rohit-sorma-sm20160224151012প্রথম দিকে টাইগার বোলারদের দারুণসব ডেলিভারিতে বিপর্যয়ে পড়া ভারত নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৬ উইকেট হারিয়ে তুলেছে ১৬৬ রান। টপঅর্ডারের ব্যাটসম্যানদের দ্রুত ফিরিয়ে দেন লাল সবুজের জার্সিধারী বোলাররা। তবে, উইকেটের এক দিক আগলে রেখে ওপেনার রোহিত শর্মা করেন ৮৩ রান। শেষ দিকে হারদিক পান্ডে খেলেন দ্বিতীয় সবোচ্চ ৩১ রানের ইনিংস।

আল আমিনের প্রথম আঘাতের পর টাইগারদের হয়ে দ্বিতীয় উইকেটটি তুলে নেন মাশরাফি। এরপর উইকেট শিকারে যোগ দেন রিয়াদ। ভারতের চতুর্থ উইকেট দখল করেন সাকিব। শেষ ওভারে আরও দুটি উইকেট পান আল আমিন।

সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে মাঠে নামে স্বাগতিক বাংলাদেশ। টাইগারদের এবারের মিশনের প্রথম প্রতিপক্ষ ভারত। বৃষ্টির শঙ্কা কাটিয়ে টস জিতে এ ম্যাচে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন টাইগারদের দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজা। টিম ইন্ডিয়ার ব্যাটিং লাইন আপের বিরুদ্ধে টাইগারদের হয়ে বোলিং উদ্বোধন করতে আসেন তাসকিন আহমেদ। ভারতের হয়ে ওপেনিংয়ে নামেন রোহিত শর্মা ও শিখর ধাওয়ান।

ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে মাশরাফি বোলিং আক্রমণে আনেন আল আমিনকে। তৃতীয় বলেই শিখর ধাওয়ানকে বোল্ড করে ভারতের এই ওপেনারকে সাজঘরে ফেরত পাঠান আল আমিন। সে বলের গতি ছিল ঘণ্টায় ১৩৪ কিমি। মাত্র ২ রান করেই বিদায় নেন ধাওয়ান।

আল আমিনের পর টাইগারদের হয়ে দ্বিতীয় উইকেট তুলে নেন মাশরাফি। টাইগারদের দলপতি বিরাট কোহলিকে মিডঅফে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের হাতে ক্যাচ তুলে দিতে বাধ্য করেন। বিদায়ের আগে কোহলি করেন মাত্র ৮ রান।
ইনিংসের অষ্টম ওভারে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের বলে বোল্ড হন ১৩ রান করা সুরেশ রায়না।

কিছুটা বিরতির পর ইনিংসের ১৫তম ওভারে সাকিবের করা বলে সৌম্য সরকারের হাতে ধরা পড়েন যুবরাজ। ডিপ মিডউইকেটে সৌম্যর হাতে ধরা পড়ার আগে তিনি ১৬ বলে করেন ১৫ রান। দলীয় ৪২ রানে টপঅর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বিপাকে পড়া ভারতকে টেনে তোলার দায়িত্ব নেন টি-টোয়েন্টিতে এক হাজার রানের মাইলফলক ছোঁয়া যুবরাজ সিং ও রোহিত শর্মা। তারা দু’জন স্কোরবোর্ডে আরও ৫৫ রান যোগ করেন।

উইকেটে সেট হয়ে টাইগার বোলারদের শাসন করেন রোহিত। মাত্র ৫৫ বলে ৭টি চার আর ৩টি ছক্কায় তিনি ৮৩ রান করেন। ইনিংসের শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলে আল আমিন ফেরান রোহিতকে। দুর্দান্ত ক্যাচ নিয়ে রোহিতকে ফেরান সৌম্য সরকার।

আল আমিনের চতুর্থ বলে সাজঘরে ফেরেন হারদিক পান্ডে (৩১ রান)। রিয়াদের তালুবন্দি হওয়ার আগে পান্ডে ১৮ বলে ৪টি চার আর একটি ছক্কা হাঁকান। রোহিতের সঙ্গে পান্ডে ৬১ রানের জুটি গড়েন। ধোনি ২ বলে একটি ছক্কায় করেন ৮ রান।

বাংলাদেশ চার পেসার আর সাতজন ব্যাটসম্যান নিয়ে মাঠে নামে। ইনজুরির শঙ্কা কাটিয়ে টিম ইন্ডিয়াকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি।

টাইগারদের হয়ে আল আমিন তিনটি উইকেট দখল করেন। এছাড়া একটি করে উইকেট নেন সাকিব, মাশরাফি, মাহমুদুল্লাহ। উইকেট শূন্য থাকেন তাসকিন ও মুস্তাফিজ।

বাংলাদেশ একাদশ: সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিথুন, ইমরুল কায়েস, সাব্বির রহমান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, তাসকিন আহমেদ, মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), মুস্তাফিজুর রহমান ও আল-আমিন হোসেন।

ভারত একাদশ: শিখর ধাওয়ান, রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, সুরেশ রায়না, যুবরাজ সিং, মহেন্দ্র সিং ধোনি (উইকেটরক্ষক), হারদিক পান্ডে, রবীন্দ্র জাদেজা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, জাসপ্রিত বুমরাহ ও আশিষ নেহরা।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ

তারেক রহমানের ভিডিও কনফারেন্স আচরণবিধি লঙ্ঘন নয়: ইসি সচিব

স্টাফ রিপোর্টার :: বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকারে লন্ডন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দলটির ...