ব্রেকিং নিউজ

জানি না, কেন এখনও রুবেলকে এত ভালোবাসি: হ্যাপি

নাজনীন আক্তার হ্যাপি ইউনাইটেড নিউজ ডেস্ক :: অভিনেত্রী নাজনীন আক্তার হ্যাপি ক্রিকেটার রুবেল হোসেন প্রসঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে বেশ কিছু কথা আবারও নতুন করে উল্লেখ করলেন। সেখানে হ্যাপি কখনো রুবেলকে অভিসম্পাত দিচ্ছেন আবার তার প্রতি ভালবাসার কথাও জানিয়েছেন। রুবেলের সঙ্গে আইনি লড়াইয়ে কুলিয়ে উঠতে না পেরে তিনি হতাশ। এই সাক্ষাৎকারে ভারতের ক্রিকেট দলের পক্ষে হ্যাপির সমর্থনেরও কথা জানান। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে তিনি জয় চান ভারতের।
বাংলাদেশ-ভারত খেলা কভার করতে আসা টাইমস অব ইন্ডিয়া গ্রুপের বাংলা পত্রিকা ‘এই সময়’ এর রুপক বসু নাজনীন আক্তার হ্যাপির একটি সাক্ষাৎকার নিয়েছেন, যেটি শুক্রবার ওই পত্রিকাটিতে প্রকাশিত হয়েছে।
রুপক বসু লিখেছেন, বাংলাদেশের অন্যতম ব্যস্ত অভিনেত্রী হ্যাপি৷ বাংলাদেশ ছাপিয়ে ক্রিকেট বিশ্বে এখন তিনি পরিচিত নাম৷ ক্রিকেটার রুবেলকে জেলে যেতে হয়েছিল তাকে ধর্ষণের অভিযোগে৷ সদ্য মুক্তি পাবে হ্যাপির নতুন সিনেমা ‘রিয়েল ম্যান’৷ এখন চলছে মিউজিক ভিডিওর শুটিং৷
বৃহস্পতিবার খুলনায় দাদুর বাড়ি থেকে ফিরেছেন রাতে৷ সেই নাজনিন আক্তার হ্যাপি ঢাকায় বসে ফোনে কথা বললেন কলকাতার দৈনিক ‘এই সময়’-এর সঙ্গে৷ খোলামেলা নানা কথা বলেন তিনি। আর ভারতীয় গণমাধ্যমও প্রতিবেদনটি প্রকাশ করেছে আবেগঘন করে।
সাক্ষাৎকারটি তুলে ধরা হল-
প্রশ্ন: বাংলাদেশ আপনার শহরে টেস্ট খেলছে৷ দেখতে আসবেন না?
হ্যাপি: টেস্ট কেন, ওয়ান ডে-ও দেখতে যাব না৷
প্রশ্ন: কেন?
হ্যাপি: আমি তো ক্রিকেট দেখতে ভালোবাসি না৷ রুবেল খেলত বলে দেখতাম৷ এখন আর দেখতে চাই না৷ কীসের জন্য দেখব, কার জন্য দেখব?
প্রশ্ন: বাংলাদেশকে সমর্থন করবেন না?
হ্যাপি: আমি খেলা দেখি না৷ তাই সমর্থনের প্রশ্ন নেই৷ কিন্তু আমি চাই, ভারত জিতুক৷
প্রশ্ন: রুবেলের প্রসঙ্গ আপনি তুললেন বলেই বলছি, বিশ্বকাপের পর শোনা গিয়েছিল আপনি রুবেলের বিরুদ্ধে মামলা তুলে নেবেন৷ ব্যাপারটা কী?
হ্যাপি: আমি মামলা তোলার কথা বলেছিলাম৷ কিন্তু সেটা বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে হারানোর পর নয়৷ জিম্বাবুয়েকে হোয়াইট ওয়াশ করার পরই বলেছিলাম৷ সবাই আমার ফেসবুক পোস্টটা পরে দেখেছে৷ আর এটাও লিখে নিন, ওই মামলা তোলার কথা ভাবাটা আমার জীবনের সবচেয়ে বড় ভুল সিদ্ধান্ত ছিল৷
প্রশ্ন: এখন পরিস্থিতিটা কোন জায়গায় দাঁড়িয়ে?
হ্যাপি: ওকে তো একটা আদালত ছেড়ে দিয়েছে৷ কিন্তু আমি উচ্চ আদালতে যাব৷ হয়তো ওখানেও ছাড়া পেয়ে যাবে৷ কিন্তু আমি ছাড়ব না৷ সত্যের জন্য লড়াই চালিয়ে যাব৷
প্রশ্ন: ভারতে আপনাদের মতো ক্রিকেটার-অভিনেতা জুটি বিরাট-আনুশকা নিয়ে কী বলবেন?
হ্যাপি: আমাদের মতো বলছেন কেন? আমাদের রিলেশনটা তো পূর্ণতাই পেল না৷ তবে বিরাট-আনুশকা দারুণ কাপল৷ খুব ভালো লাগে ওদের দেখতে৷ আমি মন থেকে প্রার্থনা করি, ওদের জুটিটা যেন চিরকাল এ রকমই থাকে৷ যে কোনও ভালোবাসাই যেন ভেঙে না যায়৷ কোনো মেয়েকে যেন আমার মতো চোখের পানি ফেলতে না হয়৷
প্রশ্ন: আপনি তো অভিনেত্রী৷ কলকাতার সিনেমা করতে ইচ্ছে করে না?
হ্যাপি: দেখেছেন, এখানেও রুবেলের প্রসঙ্গ এসে যাচ্ছে? কলকাতার দু’এক জনের সঙ্গে কথা হয়েছিল৷ কিন্তু রুবেল চাইত না, আমি অভিনয় করি৷ তাই আমি আর চেষ্টা করিনি৷
প্রশ্ন: আর এখন?
হ্যাপি: ভীষণভাবেই পশ্চিমবঙ্গে গিয়ে ফিল্ম করতে চাই৷ ডাক পেলেই চলে যাব৷
প্রশ্ন: কোনো পছন্দের নায়ক আছে নাকি?
হ্যাপি: আছে তো৷ এমনিতে অনেক অ্যাক্টরই খুব ভালো৷ কিন্তু দেব একেবারে স্পেশাল৷ লুকোব না, অভিনেত্রী হিসেবে এখন আমার ইচ্ছে দেবের সঙ্গে সিনেমা করা৷ দেবের নায়িকা হিসেবে৷
প্রশ্ন: অভিনেত্রী হিসেবে কী স্বপ্ন আপনার?
হ্যাপি: কোনো স্বপ্নই নেই৷ এটা তো আমার রুবেলকে ভুলে থাকার একটা অবলম্বন৷ জানি না, কেন এখনও রুবেলকে এত ভালোবাসি৷
প্রশ্ন: বাংলাদেশের কোনো ক্রিকেটার এ ব্যাপারে মধ্যস্থতা করতে এগিয়ে আসেনি?
হ্যাপি: একবার মাশরাফি ভাই আরও অনেকে রুবেলকে নিয়ে এসেছিল৷ বলেছিল কেস তুলে নেয়ার জন্য৷ তখন রুবেলও বলেছিল, আমাকে বিয়ে করবে৷ কিন্তু তারপর আবার যে কে সেই৷
প্রশ্ন: শেষ প্রশ্ন, কী চান, কী ভাবে মানুষ আপনাকে মনে রাখুক?
হ্যাপি: একটা মেয়ে যে সত্যের জন্য লড়াই করেছিল৷ একা৷

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ইনজেকশন দেয়া গরু চিনবেন যেভাবে

ষ্টাফ রিপোর্টার ::ঈদুল আজহার আর মাত্র ক’দিন বাকি। ঈদুল আজহা মূলত মহান ...