ব্রেকিং নিউজ

চিনে রাতের ঘুম কেড়েছেন কানাডিয়ান সুন্দরী লিন

চিনে রাতের ঘুম কেড়েছেন কানাডিয়ান সুন্দরী লিন ডেস্ক নিউজ :: চিনে রাতের ঘুম কেড়েছেন এক কানাডিয়ান সুন্দরী৷ নাহ তাঁর সৌন্দর্যে মেতে চিনাবাসীর চোখে ঘুম উড়েছে তা নয়৷ আসলে তাঁর কথাবার্তাই মাথাব্যাথার কারণ হয়ে উঠেছে চিনের৷ তিনি ‘মিস কানাডা’ আনাসতাসিয়া লিন৷

চিনে শুরু হওয়া ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতায় যোগ দেওয়ার কথা ছিল তাঁর৷ কিন্তু মানবিধাকার নিয়ে মুখ খোলার সুবাদে তাঁকে ছাড়পত্র দেয়নি সরকার৷ আর তাতেই দানা বেঁধেছে বিতর্ক৷

৬৫ তম ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতায় প্রায় ১১০জন সুন্দরী অংশগ্রহণ করেছেন৷ তাঁরা সকলে চিনে পা রাখলেও প্রতিযোগিতার 27PAGEANT-articleLargeআনুষ্ঠানিক শুরুর দিন গরহাজির ছিলেম ‘মিস কানাডা’৷ কেন আসতে পারেননি তিনি? খোঁজ নিয়ে জানা গেল, চিনে আসার ভিসাই পাননি লিন৷

বেশ কিছুদিন অপেক্ষা করে নিজেই বেরিয়ে পড়েছিলেন৷ ভেবেছিলেন কোনওভাবে চিনে পৌঁছে যাবেন তিনি৷ কিন্তু শেষমেশ তা আর হয়ে ওঠেনি৷ ফলে সৌন্দর্য প্রতিযোগিতায় তাঁর থাকা হচ্ছে না৷

কিন্তু কেন লিনের আসা আটকে দিল চিন সরকার, তা নিয়েই বিতর্ক দানা বেঁধেছে৷ কিছুদিন আগেই চিনের বন্দি ও বিশেষ এক ধর্মালম্বীদের বিরুদ্ধে অত্যাচার নিয়ে মুখ খুলেছিলেন লিন৷ তখন থেকেই চিন সরকারের চোখের বালি তিনি৷ আর তাই প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া থেকেও বঞ্চিত করা হয়েছে তাঁকে৷ যদিও এ নিয়ে মুখে কুলুপ  চিনা এমব্যাসির৷

লিনের জন্ম চিনেই৷ ছোটবেলায় কানাডায় চলে যাওয়ার পর এখন তিনি সেখানকার নাগরিক৷ কিন্তু চিনের নানা ঘটনা নিয়ে তিনি মুখ খুলতে পিছপা হন না৷ মানবাধিকার রক্ষা নিয়ে মন্তব্য করে এই অবস্থার স্বীকার হয়েও ভয় পাচ্ছেন না লিন৷

জানিয়েছেন, মুখ না খুললে কোনটা ভালো, কোনটা মন্দ তা জানানো হবে না৷ যাঁরা ভালকে সমর্থন করতে চান, খারাপের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলতে চান তাঁরাও অন্ধকারে থাকবেন৷ সেই দায় থেকেই মন্দ কাজের বিরুদ্ধে ভবিষ্যতেও সরব থাকবেন তিনি৷ মিডিয়া ও সোশ্যাল মিডিয়ায় জনপ্রিয় লিন এর আগেও তাঁর মতামত নিয়ে প্রচারের আলো কেড়ে নিয়েছিলেন৷

এবারও তিনি প্রচারের শীর্ষে৷ তাঁকে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে না দেওয়ার এই ঘটনায় চিনের বিরুদ্ধে সরব বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের মিডিয়া৷ সরব সোশ্যাল মিডিয়াও৷ নানা সমালোচনা চলছে দেশের অন্দরেও৷ আর তাতেই ঘুম ছুটেছে বেজিংয়ের ‘পাবলিক রিলেশন’ কর্তাদের৷ একদিকে দেশের হয়ে সাফাই দেওয়া অন্যদিকে লিনের জনপ্রিয়তা -সব মিলিয়ে ঘুম ছুটেছে তাঁদের৷

তবে শুধু সৌন্দর্য প্রতিযোগিতাই নয়, লিনের এই ঘটনা বিশ্বের রাজনৈতিক মহলেও যথেষ্ট প্রতিক্রিয়া তৈরি করেছে৷ লিন অবশ্য বলছেন, তাঁকে চিনে আসতে না দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন ঠিকই৷ কিন্তু চিনের ইতিহাসে এই অসম্মান জুটেছে ক্রিশ্চিয়ান বেল, ব্র্যাড পিটের মতো তাবড় ব্যক্তিদের কপালেও৷ আর তাঁদের সঙ্গে একাসনে বসতে পেরে নিজেকে খানিকটা সম্মানীয়ই বোধ করছেন লিন৷

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ইনজেকশন দেয়া গরু চিনবেন যেভাবে

ষ্টাফ রিপোর্টার ::ঈদুল আজহার আর মাত্র ক’দিন বাকি। ঈদুল আজহা মূলত মহান ...