চা-শ্রমিকদের জন্য নলকূপ বসানোর কাজ উদ্বোধন করলেন এমপি কেয়া চৌধুরী

এমপি কেয়া চৌধুরীস্টাফ রিপোর্টার :: চা-শ্রমিকদের বিশুদ্ধ পানি সংকট নিরসনে হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার ফয়জাবাদ চা বাগানে নতুন স্টাফ কোয়ার্টারে,  গভীর নলকূপ বসানোর কাজ উদ্বোধন করেছেন এমপি কেয়া চৌধুরী।

আনুষ্ঠানিকভাবে চা শ্রমিক সন্তান খোকন সাঁওতাল নামে এক দৃষ্টি প্রতিবন্ধি শিশুর মাধ্যমে গত সোমবার সকালে এমপি কেয়া চৌধুরী এ কাজের উদ্বোধন করেন।

এর পূর্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় হবিগঞ্জ-সিলেট জেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত মহিলা এমপি এডঃ আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী বলেন, সকলের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে। চা শ্রমিকদের বিশুদ্ধ পানি সংকট নিরসনে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে আবেদনের প্রেক্ষিতে এ অঞ্চলের জন্য ৪০টি নলকূপ বরাদ্দ দেয়া হয়। পাশপাশি চা শ্রমিকদের সন্তানরা যাতে লেখাপড়া করতে পারে সে জন্য ফয়জাবাদ ও রশিদপুরে দুইটি স্কুল প্রতিষ্ঠা করা হবে।

অনুষ্ঠানে এমপি কেয়া চৌধুরী চা শ্রমিকদের সুখ-দু:খে সব সময় তাদের পাশে থাকার ঘোষণা দেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চা শ্রমিক নেতা ভরত সাঁওতাল বলেন, আমাদের বিশুদ্ধ পানির তীব্র সংকট ছিল। ইতিপূর্বে বিভিন্ন সময় আমদের সুখ দুঃখ দেখার জন্য এমপি কেয়া চৌধুরী বাগান পরিদর্শন করে বিশুদ্ধ পানির সংকট নিরসনে আশ্বাস প্রদান করেছিলেন। আজ বাস্তবে এমপি কেয়া চৌধুরী নিজে এসে গভীর নলকূপের বসানোর কাজ উদ্বোধন করেছেন। এতে করে আমাদের চা শ্রমিকদের মাঝে আনন্দ বইছে।

ভরত সাঁওতালের ন্যায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে লাবনী মুন্ডা, নির্মল সাঁওতাল, মিতা কর্মকার, মহেশ চাষা, অর্জুন চাষাসহ অনন্য শ্রমিকরা গভীর নলকূপ পেয়ে এমপি কেয়া চৌধুরীর কাছে  কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

এমপি কেয়া চৌধুরী

চা শ্রমিকদের সাথে এমপি কেয়া চৌধুরী

অনুষ্ঠানে বাহুবল উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রকৌশলী এস এম মারুফ ইমাম জানান, পর্যায়ক্রমে অন্যন্য স্থানেও দ্রুত নলকূপগুলো বসানো হবে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নিবার্হী কর্মকতা নাজমুল হক, বাগান ব্যবস্থাপক আমজাদ হোসেন,  ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি শাহেদ চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক আফতাব উদ্দীন,  অমিরন দেবসহ আওয়ামীলীগের বিভিন্নস্তরের নেতৃবৃন্দ।

প্রসঙ্গত, বাহুবল নবীগঞ্জের চা বাগানসহ তার নিকটবর্তী এলাকার বিশুদ্ধ পানি নিরসনের জন্য এমপি কেয়া চৌধুরী প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে নলকূপের আবেদন করেন। এ প্রেক্ষিতে ৫টি গভীরসহ ৪০টি নলকূপ বরাদ্দ দেওয়া হয়। বরাদ্দ সাপেক্ষে ফয়জাবাদ, বালুছড়া, রামপুর, রশিদপুর, কামাইছড়া, আমতলি, বাদামটিলা, চিতলাছড়া, বৃন্দাবন, মধুপুর চা বাগানসহ বিভিন্ন স্থানে বিশুদ্ধ পানির সংকট নিরসনে এসব নলকূপ বসানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

খুলনা বিএল কলেজ ছাত্রী গৃহবধূ সোনালী

‘যদি মরে যাই তাহলে শুধু রবিনই দায়ী থাকবে’

মহানন্দ অধিকারী মিন্টু, পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি :: খুলনার পাইকগাছায় মৃত্যুর পূর্বে খুলনা বিএল ...