ব্রেকিং নিউজ

চলন্ত বাস থেকে বাবাকে ফেলে দিয়ে মেয়েকে হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার :: আশুলিয়ায় ছিনতাইয়ের পর চলন্ত বাস থেকে বাবাকে ফেলে দিয়ে তার মেয়েকে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার রাত ১১ টার দিকে বাইপাইল-আব্দুল্লাহপুর সড়কের মরাগাঙ এলাকা থেকে ওই নারীর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত জরিনা বেগমের (৪৫) বাবার বাড়ি সিরাজগঞ্জের চৌহালী এলাকায়। তিনি তার বাবা আকবর আলীকে (৭০) নিয়ে শুক্রবার দুপুরে আশুলিয়ার জামগড়া এলাকায় মেয়ের শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে আশুলিয়ার জামগড়া বাসষ্ট্যান্ডে টাঙ্গাইলগামী একটি বাসে ওঠেন বাবা-মেয়ে। বাসটি সেখান থেকে কিছুদূর যাওয়ার পর যাত্রী তোলার কথা বলে সাভারের হেমায়েতপুরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়। এরপর আবার সেখান থেকে ফিরে আশুলিয়ার বাইপাইল-আব্দুল্লাহপুর সড়ক হয়ে আব্দুল্লাহপুরের দিকে চলতে থাকে। এভাবে ঘোরাঘুরি করতে থাকায় বাস চালক-হেলপার ও সুপারভাইজারের সঙ্গে জরিনা বেগম ও তার বাবার বাকবিতন্ডা হয়।

এক পর্যায়ে বাসটি আশুলিয়া বাসষ্ট্যান্ডের কাছাকাছি গেলে বাসের শ্রমিকরা আকবর আলীকে পিটিয়ে দেহ তল্লাশি করে সঙ্গে থাকা ৬০০ টাকা ছিনিয়ে নেয়। পরে তাকে আশুলিয়া ব্রিজের নিচে চলন্ত বাস থেকে ফেলে দেয়। বৃদ্ধ আকবর আলী মেয়েকে বাচাঁতে আশুলিয়া থানার টহল পুলিশকে বিষয়টি জানান। পুলিশ জরিনা বেগমকে উদ্ধারে মহাসড়ক ধরে এগিয়ে যেতে থাকলে আশুলিয়া ব্রিজ থেকে সামান্য একটু দূরে মরাগাঙ এলাকায় মহাসড়কের পাশে তার মৃতদেহ দেখতে পায়।

ঢাকা জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সাভার সার্কেল) তাহমিদুল ইসলাম জানান, বাস থেকে ফেলে হত্যার আগে বাবার মত ওই জরিনা বেগমকেও পিটিয়েছে বাস শ্রমিকরা। কিন্তু টাঙ্গাইলের কোন বাসে তারা বাড়ি যাচ্ছিলেন তা ঠিক করে জানাতে পারছেন না আকবর আলী। এ ঘটনায় একটি মামলা নেয়া হয়েছে। তদন্ত করে অপরাধীদের গ্রেপ্তারের আওতায় আনা হবে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ফ্রান্সে ব্যস্ত মার্কেটের সামনে বন্দুক হামলায় নিহত ৩

নিউজ ডেস্ক :: ফ্রান্সের পূর্বাঞ্চলীয় শহর স্ট্রসবর্গে একটি ব্যস্ত মার্কেটের সামনে বন্দুকধারীর ...