চলচ্চিত্র উৎসবের সেরা ছবি ‘গেরিলা’

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার নাসির উদ্দিন ইউসুফ নির্মিত ছবি ‘গেরিলা’। ১৭ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে এটি জিতে নিয়েছে সেরা চলচ্চিত্রের মর্যাদা। পরিচালক নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চুকে প্রদান করা হয়েছে নেটপ্যাক সম্মাননা। উৎসবের শেষদিনে ১৭ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কলকাতার নন্দন প্রেক্ষাগৃহে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির উপস্থিতিতে জুরি বোর্ডের পক্ষ থেকে কলকাতার বরেণ চলচ্চিত্র পরিচালক সন্দীপ রায় এ সম্মাননার জন্য ‘গেরিলা’র ছবির ঘোষণা করেন।

কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবে এবারই প্রথম এই সম্মাননা দেওয়া হয়েছে, যা অর্জন করলো বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ছবি ‘গেরিলা’।
১৭ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে গত ১১ নভেম্বর শুক্রবার বিকাল ৩টায় ‘গেরিলা’ ছবিটি প্রথম প্রদর্শন হয় কলকাতার নন্দনে। এটি প্রদর্শনের মধ্য দিয়েই উৎসবে এশীয় চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতার উদ্বোধন হয়। চলচ্চিত্রটির দ্বিতীয় ও তৃতীয় প্রদর্শনী হয়েছে যথাক্রমে ১২ ও ১৪ নভেম্বর। প্রতিযোগিতায় এশিয়ার চলচ্চিত্র বিভাগে ১৫টি ছবির মধ্যে বাংলাদেশের গেরিলা ছবিটি সেরা নির্বাচিত হয়। কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবে যোগ দিতে আসা পরিচালক নাসির উদ্দীন ইউসুফ সম্মাননাটি গ্রহণ করেন।
‘গেরিলা’ কাহিনীটি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে ঘিরে আবর্তিত হয়েছে। একজন বীর নারী মুক্তিযোদ্ধা বিলকিসকে ঘিরে এগিয়ে চলে ছবির কাহিনী। বিলকিসের মতো হাজার নারী নানা উপায়ে নানা ভাবে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন, তাদেরকেই বিলকিস যেন প্রতিনিধিত্ব করেছে এই চলচ্চিত্রে। সু-সাহিত্যিক সৈয়দ শামসুল হকের ‘নিষিদ্ধ লোবান’ উপন্যাস মুক্তিযুদ্ধে ঢাকা উত্তর অঞ্চলের 17.11-12সেকশন কমান্ডার নাসির উদ্দীন ইউসুফ এ ছবিতে তুলে ধরেছেন মুক্তিযুদ্ধের ব্যক্তিগত কিছু অভিজ্ঞতা।
বাংলাদেশ সরকারের অনুদান প্রাপ্ত ‘গেরিলা‘ ছবিতে জয়া আহসান এখানে প্রধান চরিত্র বিলকিসের ভূমিকায় অভিনয় করেন । তার স্বামীর চরিত্রে স্বল্পকালীন উপস্থিতি  ছিল নায়ক ফেরদৌসের ।  পর্দায় এই চরিত্রটি উঠে এসেছে বিলকিসের কল্পনায়। ২৫শে মার্চ রাতেই তাকে পাকিস্তানের হানাদার বাহিনী তাকে ধরে নিয়ে যায়। কিন্তু বিলকিস স্বামীর শোকে ভেঙ্গে পড়েন নি। বিভিন্নভাবে মুক্তিযোদ্ধাদের সাহায্য করে চলেন তিনি। কিছু দুঃসাহসী অভিযানে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণও করেন বিলকিস। অমর সুরকার আলতাফ মাহমুদের বাড়িটিকে কেন্দ্র করে মুক্তিযোদ্ধাদের অভিযানগুলো পরিচালিত হতো। এখানে আলতাফ মাহমুদের চরিত্রে অভিনয় করেছেন আহমেদ রুবেল।
একসময় আলতাফ মাহমুদসহ আরো অনেক মুক্তিযোদ্ধা আলতাফ মাহমুদের বাড়িতেই পাকিস্তানিদের হাতে ধরা পড়েন। ধরা পড়তে পড়তে বিলকিস বেঁচে যান। পালিয়ে চলে আসেন রংপুরে নিজ নিজ গ্রাম জলেশ্বরীতে সহোদর ভাই খোকনের কাছে। ততোদিনে খোকন মুক্তিযুদ্ধে যোগ দিয়ে ডিনামাইট মেরে উড়িয়ে দিয়েছে রেলব্রীজ। বিলকিসের সঙ্গেদেখা হওয়রার আগেই খোকন পাকিস্তানিদের হাতে ধরা পড়ে এবং তাকে নৃশংসভাবে খুন করে পাকিস্তানিরা। ভাইয়ের লাশ খুঁজতে এসে বিলকিস ধরা পড়ে। বিলকিস বন্দী করা হয়।  কিন্তু শেষপর্যন্ত বিলকিস আত্মসমর্পণ করেন না পাকিস্তানি মিলিটারিক কাছে। মানুষের জন্য, দেশমাতৃকার মুক্তির জন্য এবং নিজের সম্ভম রক্ষার জন্য আত্মোৎসর্গ করেস বিলকিস।
‘গেরিলা’ ছবিটির সঙ্গীত পরিচালনায় ছিলেন শিমূল ইউসুফ। এতে রয়েছে সাতটি গান। যার মধ্যে শহীদ আলতাফ মাহমুদের সুর করা গান আছে চারটি। ছবিটি বাংলাদেশে মুক্তি পায় চলতি বছরের পহেলা বৈশাখ (১৪ এপ্রিল)। দেশবাসী ছবিটি সাদরে গ্রহণ করে। ১৭তম কলকাতা উৎসবে সেরা চলচ্চিত্র নির্বাচিত হওয়ার মধ্য দিয়ে ‘গেরিলা’ ছবিটি বাংলাদেশের জন্য বয়ে আনলো আন্তর্জাতিক সম্মান।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/বিনোদন নিউজ

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

হাসিনা- আ ডটারস টেল

মুক্তি পাচ্ছে ‘হাসিনা- আ ডটারস টেল’

ডেস্ক নিউজ :: স্টার সিনাপ্লেক্স, যমুনা ব্লকবাস্টার, সিলভার স্ক্রিন চট্টগ্রাম এবং মধুমিতাসহ বেশকয়েকটি ...