গাজীপুরে কিশোরী গণধর্ষণের শিকার

গাজীপুর : গাজীপুর মহানগরীর ডেগেরেচালা এলাকায় এক কিশোরী (১৫) ধর্ষণের শিকার হয়েছে। তাকে সংকটাপন্ন অবস্থায় মঙ্গলবার গাজীপুর সদর হাসপাতালের গাইনী বিভাগে ভর্তি করা হয়েছে। সে স্থানীয় একটি কৌটা তৈরীর কারখানায় কাজ করতো। তার মা  একজন গৃহকর্মী। বিভিন্ন মেসে রান্না করে অতি কষ্টে সংসার চালায়। তাদের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইলে। এ ব্যাপারে তার মা জয়দেবপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, হতভাগ্য কিশোরীটি নগরীর ডেগেরচালা এলাকার জনৈক মো: আতাউর রহমানের বাসায় মা’র সাথে ভাড়া থেকে স্থানীয় একটি কৌটা তৈরীর কারখানায় কাজ করতো। কর্মস্থলে যাওয়া আসার সময় এলাকার মো: ইউসুফ খানের ছেলে বখাটে সজিব প্রায়ই তাকে উত্যক্ত করতো এবং কু- প্রসত্মাব দিত। বিষয়টি সে মা কে জানালে তিনি বাড়ির মালিককে জানায়।

ব্যাপারটি জানাজানি হলে এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ৬ জানুয়ারী রাতে অভিযুক্ত সজিব খান বন্ধু নাহিদ ও সেতুসহ আরও চার পাঁচজন মিলে মেয়টিকে বাসার কাছ থেকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায়। তারা সজিবের বাড়ির পাশ্ববর্তী নির্জণ মাঠে নিয়ে একওে পর এক ধর্ষণ করে।

পরে তারা মেয়েটিকে অচেতন অবস্থায় বাসার কাছে ফেলে রেখে যায়। আত্মীয় স্বজনরা তাকে খুঁজে পেয়ে মুমূর্ষ অবস্থায় গাজীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

হাসপাতালের চিকিৎসক ডাঃ এলিজা জানান, উপোর্যপরী ধর্ষণের ফলে মেয়েটির অতিরিক্ত রক্তড়্গরণ হয়েছে। তার গোপনাঙ্গের পেশী ছিড়ে গেছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

মামলার তদনত্মকারি কর্মকর্তা জয়দেবপুর থানার এস.আই মাহমুদ মঈন অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আসামীদের ধরার জন্য জোর চেষ্টা চলছে।

প্রতিবেশী হাজী আদম আলী জানান, অভিযুক্তরা এলাকায় বিভিন্ন সন্ত্রাসী কাজে জড়িত। তারা মাদক সেবনের পাশাপাশি মাদকের ব্যবসাও করে। তাদের উপযুক্ত শাস্তি হওয়া উচিৎ।

মোসাদ্দেক হোসেন/

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ডে-কেয়ার আইন চূড়ান্ত পর্যায়ে: চুমকি

ডে-কেয়ার আইন চূড়ান্ত পর্যায়ে: চুমকি

স্টাফ রিপোর্টার :: মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি ...