ব্রেকিং নিউজ

ক্যাম্পাসে বিশাল শোক র‌্যালী: মূল আসামী গ্রেফতার

দুর্বৃত্তদের হামলায় সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২য় বর্ষ ২য় সেমিস্টারের দু’ছাত্র হত্যার প্রতিবাদ ও হত্যাকারীদের দৃষ্টানত্মমূলক শাসিত্মর দাবীতে দু’কিলোমিটার জুড়ে বিশাল শোক র‌্যালী করেছে শিক্ষক-কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীরা। ক্যাম্পাসের গোল চত্বর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক পর্যনত্ম দীর্ঘ দু’কিলোমিটার ব্যাপী শোক র‌্যালীতে প্রায় দু’সহস্রাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

শনিবার সকাল ১১টায় এ শোক র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়।

শোক র‌্যালী শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে এক শোক সভার আয়োজন করা হয়।

উপাচার্য অধ্যাপক সালেহ উদ্দিনের সভাপতিত্বে ও রেজিস্টার ইশফাকুল হোসেনের পরিচালনায় শোক সভায় বক্তব্য রাখেন, নিহত খায়রম্নল ও অনিকের সহপাঠী যোসেফ, সাদ, বিভাগের ৩য় বর্ষ ২য় সেমিস্টারের ছাত্র রিফাত, ছাত্রলীগের আহবায়ক সামছুজ্জামান চৌধুরী সুমন, কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক মহিবুল আলম, ড. মসত্মাবুর রহমান, বিভাগের প্রধান ড. আক্তারম্নল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ ড. ইলিয়াস উদ্দিন বিশ্বাস প্রমূখ।

শোক সভায় বক্তারা নিহতদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে ফাসিঁর দাবী জানান। নির্মম এই হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে উপস্থিত সবাই ধিক্কার জানায়।

এদিকে সভায় ছাত্রলীগের আহবায়ক সামছুজ্জামান চৌধুরী সুমন বক্তব্য রাখায় সভাস্থল ত্যাগ করে ক্যাম্পাসে মিছিল করে বিড়্গুব্ধ শিড়্গার্থীরা।

শিড়্গার্থীরা জানায়,আমরা অহিংস আন্দোলন করে আমাদের সহপাঠিদের হত্যাকারীদের বিচার দাবী করছি। এটাকে পলিটিক্যালি জড়ালে পরিস্থিতি ভয়ানক হবে। এসময় উপস্থিত শিক্ষার্থীরা হত্যাকারীদের ফাসিঁ, প্রক্টরের পদত্যাগ ও লাশের অবমাননা করার অভিযোগ এনে লাশ অবমাননাকারী সহকারী প্রক্টর ফারম্নক উদ্দিনের ক্ষমা না চাওয়া পর্যনত্ম আন্দোলন চালিয়ে যাবেন বলে ঘোষণা দেন।

পরে বিড়্গুব্ধ শিড়্গার্থীরা ক্যাম্পাসের গুরম্নত্বপূর্ণ সড়কে প্রশাসন বিরোধী সেস্নাগানে মিছিল দেয়। এবং গোলচত্ত্বরে অবস্থান নেয়। এসময় শাখা ছাত্রলীগের গ্রম্নপগুলো ক্যাম্পাসের ফুড কোর্টে এসে অবস্থান নেয়।তখন ক্যাম্পাসে এক উত্তেজনার পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

পরে বেলা দেড়টার দিকে উপাচার্য অধ্যাপক ড.সালেহ উদ্দিন ঘটনাস্থলে পৌছলে পরিস্থিতি শানত্ম হয়। এসময় ভিসি বলেন,পুলিশ দোষীদের গ্রেফতার করছে এবং তাদের দ্রম্নত বিচার হবে।

এদিকে দু ছাত্রের হত্যার ঘটনার মূল হোতা সোহেল নামের এক ব্যক্তিকে জালালাবাদ থানার পুলিশ শনিবার ১টার দিকে শহরতলীর চিড়াখাল এলাকা থেকে গ্রেফতার করে। তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ে করা মামলা নং ৫/১৭/১৭/১১ তে গ্রেফতার করা হয়। এ পর্যনত্ম পুলিশ জড়িত সন্দেহে চার জনকে গ্রেফতার করেছে।

এদিকে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সিলেটের পুলিশ প্রশাসনকে দু,শিক্ষার্থী হত্যকারীদের দ্রুত গ্রেফতারে নির্দেশ দিয়েছেন। ঢাকার বাসাবোতে গতকাল রবিবার জানাযা শেষে খায়রুলের লাশ দাফন করা হয়েছে বলে তার পারিবারিক সুত্রে জানা গেছে।

প্রসংগত, গত ১৬ ই  ডিসেম্বর বিজয় দিবসে শাবির ৭ শিক্ষার্থী মিলে শহরতলীর চেঙ্গেরখাল নদীতে নৌকা ভ্রমণ করতে গেলে দুর্বৃত্তরা হামলা চালিয়ে নদীতে ফেলে দেয়। পরের দিন শনিবার সকালে উদ্ধার তৎপরতা চালিয়ে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/আতিক মাহবুব/শাবি প্রতিনিধি

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

Ranga Mathay Chiruni

বিপ্লব গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘রাঙা মাথায় চিরুনি’ : শিশু মনের চিরন্তন কৌতুহল

বিপ্লব গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘রাঙা মাথায় চিরুনি’ : শিশু মনের চিরন্তন কৌতুহল –সানি সরকার ...