ক্যাম্পাসে পুলিশের হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

ক্যাম্পাসে পুলিশের হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধনস্টাফ রিপোর্টার :: কোটা সংস্কার দাবির আন্দোলনে ‘এক বন্ধু গুলিবিদ্ধ’ হওয়ার প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীরা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধন করেছেন।

সোমবার বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত এ মানববন্ধন করেন তারা।

মানববন্ধনের আয়োজকরা বলছেন, রোববার (৮ এপ্রিল) বিকেল থেকে ভোর পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও শাহবাগ এলাকায় চলা কোটা সংস্কারের আন্দোলনে ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞানের এক শিক্ষার্থী গুলিবিদ্ধ হয়েছেন, তার প্রতিবাদে এ কর্মসূচি পালন করছেন তারা।

মানববন্ধনকারীদের হাতে তখন বিভিন্ন স্লোগান সম্বলিত পোস্টার ও প্ল্যাকার্ড দেখা যায়। যেখানে লেখা ছিল, ‘আমার ক্যাম্পাসে হানাদার পুলিশ কেন?’, ‘আমার ভাই রক্তাক্ত কেন?’, ‘আমার বোন লাঞ্ছিত কেন?’, ‘ঢাবি প্রশাসন কোন দিকে, ঢাবি কাদের?’, ‘রাতের আঁধারের ওই পিশাচ কারা?’

কোটা সংস্কারের দাবিতে রোববার বিকেলে গণপদযাত্রা কর্মসূচি শুরু করে ঢাবি, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি), ঢাকা কলেজসহ রাজধানীর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। এক পর্যায়ে তারা অবরোধ করে শাহবাগ মোড়। রাস্তা থেকে তাদের হটিয়ে দিতে রাতে জলকামান ও কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে পুলিশ। এ সময় বেশকিছু শিক্ষার্থী আহত হন।

শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার অভিযোগ তুলে মধ্যরাতেই রাস্তায় নামেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হলের ছাত্রীরা। এতে উত্তাল হয়ে পড়ে গোটা ক্যাম্পাস। এ সময় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক শাহবাগে এসে সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আলোচনায় বসার জন্য দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে নির্দেশ দিয়েছেন।

কিন্তু এর মধ্যেই ঢাবি ক্যাম্পাসে উপাচার্যের বাসভবনে ওই হামলা চালানো হয়। সে সময় দুটি মাইক্রোবাস ও মসজিদের সামনে মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগও করা হয়। পরে আন্দোলনকারীদের হটিয়ে দিতে আরো কড়া অবস্থানে যায় পুলিশ। আন্দোলনকারীরা দোয়েল চত্বরে অবস্থান নিলে সেখান থেকেও তাদের হটিয়ে দেওয়া হয়। সকালে কোটা সংস্কার আন্দোলনের বিরুদ্ধে মিছিল করে ক্ষমতাসীন দলের সহযোগী সংগঠন ছাত্রলীগ।

নিজের বাসভবনে হামলার বিষয়ে উপাচার্য ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেছেন, গতকাল রাতে যে তাণ্ডব চালানো হয়েছে, এতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষার্থী সংশ্লিষ্ট নয়, একটি প্রশিক্ষিত ও সন্ত্রাসী গোষ্ঠী লাশের রাজনীতির জন্য এ তাণ্ডব চালিয়েছে। এই হামলা স্বাভাবিক নয়। হত্যার উদ্দেশেই হামলাটি হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আইনি পথে খালেদা জিয়ার মুক্তি ভুলে যান: মওদুদ

ষ্টাফ রিপোর্টার :: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ দলের নেতা-কর্মীদের ...