কালকিনিতে পৌর মেয়রকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

কালকিনিতে পৌর মেয়রকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টামোনসিফ ফরাজী সজীব, মাদারীপুর প্রতিনিধি :: মাদারীপুরের কালকিনি পৌরসভার মেয়র ও পৌর আ’লীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ এনায়েত হোসেন হাওলাদারকে রাতের আধাঁরে নিজ ঘরে ঘুমন্ত অবস্থায় কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা চালিয়েছে দূর্বৃত্তরা। শনিবার মধ্যে রাতে এ হামলার ঘটনাটি ঘটে। তা কে আহত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়। এ হামলার ঘটনার প্রতিবাদে আজ রোববার সকালে থেকে দুই ঘন্টা ব্যাপী রাস্তা অবরোধ রেখে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ মিছিল প্রদর্শন করেন ছাত্রলীগ ও যুবলীগ।

অভিযোগ ও পুলিশ সুত্রে জানাগেছে, একদল মুখোশধারী দূর্বৃত্তরা আনুমানিক রাত দেড়টার দিকে একটি মাইক্রোবাস ও দুইটি মোটরসাইকেল নিয়ে এসে প্রথমে মেয়রের বাড়ির পেছনের পকেট গেট ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে। এরপর মেয়রের শোবার ঘরের জানালার গ্রিল ভেঙ্গে রাম দা দিয়ে তার মাথার উপর ঘুমন্ত অবস্থায় আঘাত করে।

পরে প্রানে বাঁচতে মেয়র তার বিছানায় থাকা শর্টগান দিয়ে ফাঁকা গুলি ছোড়েন। এসময় দূর্বৃত্তরা পাল্টা ফাঁকা গুলি ছোড়ে এবং কয়েকটি বোমা বিস্ফোরন ঘটিয়ে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন আহত মেয়রকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুমন কুমার দেব ,কালকিনি উপজেলা চেয়ারম্যান তৌফিকুজ্জামান শাহীন, কালকিনি থানার অফিসার ইনচার্জ কৃপা সিন্দু বালা,

ও কালকিনি থানার ওসি কৃপা সিন্ধু বালা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এদিকে মেয়রের ওপর ন্যাক্কারজনক হামলা ঘটনা জানাজানি হলে স্থানীয়রা বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। সারা কালকিনি পৌর এলাকা উত্তাল হয়ে উঠছে ।
তাৎক্ষনিক উপজেলা ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগ সহ স্থানীয়রা উপজেলা সদর রোডে বিক্ষোভ মিছিল করেন এবং টায়ার জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ করেন। এ হামলার খবর চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পুরো উপজেলা।

আহত মেয়র এনায়েত হোসেন হাওলাদার জানান, পূর্ব পরিকল্পিতভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে এই ঘটনা ঘটিয়েছে। তবে আমার কাছে সর্টগান থাকায় দুর্বৃত্তরা মারাÍক কিছু করতে পারেনি। তবে এই ঘটনার সাথে আমার প্রতিপক্ষরা জড়িত বলে সন্দেহ করছি। এব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কৃপা সিন্ধু বালা জানান, ঘটনার পর তাৎক্ষণিক আমরা মেয়রের বাড়ি সংলগ্ন এলাকায় পুলিশ মোতায়ন করেছি। মেয়রের পরিবার থেকে মামলা দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া অনাকাংখিত ঘটনা এড়াতে কালকিনি উপজেলায়ও অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।

মাদারীপুর ৩ আসনের এমপি ও কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাছিম ও জেলা আ.লীগের সভাপতি সাহাবুদ্দিন আহিমেদ মোল্লা মেয়র এনায়েতের ওপর ন্যাক্কারজনক হামলার তীব্র নিন্দা এবং ক্ষোখ জানিয়ে অবিলম্বে দোসীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবী করেছেন।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

সরকারী ভাবে বিনামূল্যে ঘর পেলো দরিদ্র পরিবার গুলো

সরকারী ভাবে বিনামূল্যে ঘর পেলো দরিদ্র পরিবার গুলো

জহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :: জমি আছে ঘর নেই এ প্রকল্পের ...