কসবির সাজা, মুখ খুললেন তনুশ্রী, পদ্মা লক্ষ্মী

ডেস্ক নিউজ :: ২৫ সেপ্টেম্বর যৌন হয়রানির দায়ে সাজা হয়েছে মার্কিন কমেডিয়ান বিল কসবির। আরেক মার্কিন টিভি ব্যক্তিত্ব পদ্মা লক্ষ্মী জানিয়েছেন কিশোরী বয়সে ধর্ষিত হওয়ার কথা। এদিকে ভারতে নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ এনেছেন তনুশ্রী দত্ত।  এসব নিয়ে লিখেছেন

যৌন হয়রানির দায়ে মার্কিন কমেডিয়ান বিল কসবির সাজা হয়েছে। ৮১ বছর বয়সী অভিনেতাকে তিন থেকে ১০ বছর পর্যন্ত সাজা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের আদালত।

কমপক্ষে তিন বছরের সাজা ভোগের পর তিনি জামিনের জন্য বিবেচিত হবেন। জামিন না মিললে তাঁকে ১০ বছর পর্যন্ত কারাগারেই কাটাতে হতে পারে।

কসবিই প্রথম হলিউড অভিনেতা, ‘মি টু’ আন্দোলন শুরু হওয়ার পর যাঁর সাজা হলো। রায় ঘোষণার সময় পেনসিলভানিয়ার আদালতের বিচারক স্টিভেন ও’নিল কসবিকে ‘সহিংস যৌন সন্ত্রাসী’ উল্লেখ করে বলেন, ‘বাকি জীবন তাঁকে কাউন্সিলিংয়ের মধ্য দিয়ে যেতে হবে এবং যৌন সন্ত্রাসী হিসেবে তাঁর নাম লিপিবদ্ধ হবে।’

রায় ঘোষণার পর কসবিকে বিবৃতি দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হলেও তিনি কোনো কথা বলেননি। কসবির আইনজীবীরা জানান, তাঁরা এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবেন।

২০০৪ সালে ফিলাডেলফিয়ায় নিজের বাড়িতে পুরনো বন্ধু আন্দ্রে কনস্ট্যান্ডকে মাদকদ্রব্য সেবন করানো ও যৌন হেনস্তার অভিযোগ ছিল অভিনেতার বিরুদ্ধে, এ বছরের শুরুর দিকে যা প্রমাণিত হয়।

আশির দশকে টিভিতে ‘দ্য কসবি শো’ দিয়ে ব্যাপক পরিচিতি পান কসবি। অভিনেতার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ নতুন কিছু নয়। ২০১০ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ৬০ জনেরও বেশি নারী তাঁর বিরুদ্ধে নানা ধরনের যৌন হয়রানির অভিযোগ করেছেন।

নানার বিরুদ্ধে মুখ খুললেন তনুশ্রী

দিন কয়েক আগে ২০০৮ সালে যৌন হয়রানির শিকার হয়েছিলেন বলে অভিযোগ করেন তনুশ্রী দত্ত। জানান, ‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবি করার সময় এক অভিনেতা তাঁর সঙ্গে আপত্তিজনক আচরণ করেছিলেন।

এ নিয়ে জল্পনার মধ্যেই ফের বিস্ফোরণ। জুম টিভিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বাঙালি অভিনেত্রী জানালেন, হেনস্তাকারী ব্যক্তিটি আর কেউ নন—নানা পাটেকর! ‘সেই দিন সে অসভ্যতার সব সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছিল।

আমাকে জড়িয়ে ধরে অসভ্যতা করছিল। আমার সঙ্গে সে অন্তরঙ্গ দৃশ্যও করতে চাইছিল। রাজি না হওয়ায় সে কিছু রাজনৈতিক কর্মী ডেকে আমার গাড়ি ভাঙচুর করে।’

নানা পাটেকরের এই আচরণ নতুন কিছু নয় জানিয়ে তনুশ্রী বলেন, ‘সবাই জানে সে নারীদের কতটা অসম্মান করে। অভিনেত্রীরা তার হাতে মার খেয়েছে, যৌন হেনস্তার শিকার হয়েছে।’

১০ বছর আগের ওই ঘটনা তাঁর পুরো ক্যারিয়ার শেষ করে দিয়েছে বলেও দাবি করেন ‘আশিক বানায়া আপনে’ অভিনেত্রী, ‘আমার হাতে ৩০ থেকে ৪০টি ছবির অফার ছিল।

কোনোটাই করতে পারিনি। নিজেকে নিরাপদ ভাবতে পারছিলাম না।’ এই ঘটনার পর তনুশ্রীর একটিই ছবি মুক্তি পায় [‘অ্যাপার্টমেন্ট’], পরে তাঁকে বলিউডে আর দেখা যায়নি।

তাঁর এমন অভিযোগের পর হলিউডের মতো বলিউডেও ‘মি টু’র মতো আন্দোলন শুরু হবে কি না, এ নিয়ে নানা আলোচনা চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

তনুশ্রী নিজে অবশ্য সেই সম্ভবনা দেখেন না, ‘এখানে সবাই স্বার্থপর, বলিউডে কিছুই হবে না। আমার ঘটনা ওই ছবির সেটের সবাই জানত। পরে বলিউডের সবাই জেনেছে। কী হয়েছে? গেল কয়েক বছরে অক্ষয় কুমার থেকে রজনীকান্ত পর্যন্ত তাঁর সঙ্গে কাজ করছে। আন্দোলন কিভাবে হবে।’

হলিউডে ‘মি টু’ শুরু হওয়ার পর ভারতে রাধিকা আপ্তেসহ বেশ কয়েকজন অভিনেত্রী যৌন হয়রানির ঘটনা প্রকাশ করলেও কেউই কারো নাম বলেননি। তনুশ্রীই প্রথম নাম প্রকাশ করলেন। তাঁর অভিযোগের পর হিন্দুস্তান টাইমসের পক্ষ থেকে নানা পাটেকরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও সাড়া মেলেনি।

ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন পদ্মা

১৬ বছর বয়সে ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন মার্কিন টিভি ব্যক্তিত্ব পদ্মা লক্ষ্মী। নিউ ইয়র্ক টাইমসে লেখা কলামে পদ্মা নিজেই এ কথা জানান। একই লেখায় ‘টপ শেফ’ উপস্থাপিকা সাত বছর বয়সে যৌন হয়রানির শিকার হওয়ার ঘটনাও প্রকাশ করেন। ৪৮ বছর বয়সী পদ্মা লেখেন, ‘১৬ বছর বয়সে সুদর্শন এক যুবকের প্রেমে পড়ি।

একবার তার ফ্ল্যাটেই রাত কাটাতে হয়। সেদিন ঘুমের মধ্যে সে আমাকে ধর্ষণ করে।’ এ ছাড়া সাত বছর বয়সে দাদা-দাদির সঙ্গে সময় কাটানোর জন্য তাকে ভারতে পাঠানো হয়। তখন এক আত্মীয় তাঁকে বাজেভাবে স্পর্শ করেন বলেন জানান পদ্মা।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

দরজার ওপাশে…..(বিশেষ আয়োজন)

চার দশকের ক্যারিয়ার। শুধু দেশের ইতিহাসের অন্যতম সফল ব্যান্ড ‘এলআরবি’র প্রাণভোমরাই নন, ...