কবি ফরিদ আহমদ দুলাল’র দুটি কবিতা ‘মৃত্যুবার্তা’ এবং ‘শান্তিযাত্রা’

Kobita-Home-Page-Banner
১.মৃত্যুবার্তা
ইদানিং মাঝে-মধ্যেই দাদার শরীরের গন্ধ নাকে এসে লাগে
যখন একাকী থাকি বুকে কী-যে শিহরণ জাগে
দাদা সজ্জন ছিলেন অতিশয় সৎ
মানুষেরা তাঁর কাছে সদা নিরাপদ
অমন মানুষ কই দেখি না কোথাও
অমৃতকথন তার ভাসানের নাও
যতটাই সরল-সহজ ততটাই গুণিজন
মানবকল্যাণ ব্রতে উৎসর্গ করেন সমগ্র জীবন;
আমার শরীরে যদি তাঁর গন্ধ ভাসে
ভুলেও ভেবো না কেউ তাঁর দ্যুতি নিয়ে এ জীবন হাসে
তিনি সাহসী পুরুষ আর আমি ভীরু নির্বোধ কাঙাল
দাদা যদি সমুদ্রে প্রবালদ্বীপ আমি ঘূর্ণাবর্তে বিচ্ছিন্ন প্রবাল;
যদি তাঁর মায়াময় সুগন্ধ বেরোয় শরীরের ভাঁজ খুলে
তবে কি নিজের ভুলে দাঁড়িয়েছি মায়াবী নদীর কূলে?
যে নদী পেরুলে পাবো অনিন্দ্যচুম্বন মধুবন
পূর্ণ মানুষের শোভা পাবো খুঁজে অমৃতজীবন?
 
সজ্জন দাদার শরীরের গন্ধ কেন নিজের শরীরে বই
যদি আমি তাঁর পরম্পরা নিয়ে এগোবার যোগ্য নই
যতবার দাদার সুবাস পাই ততবার ভাবি পূর্ণ হয়ে যাই
পূর্ণ হই শুদ্ধতায় প্রজ্ঞায়-মেধায়-সততায়, যেন নিষ্ঠায় পূর্ণতা পাই;
জীবনসায়াহ্নে গ্রীষ্মের দুপুরে আহারান্তে আরামচেয়ারে শুয়ে
সুখটান দিতে দিতে বনেদীহুকোয় দাদা যেতেন ঘুমিয়ে
আর আমি দাদার সুগন্ধ উদযাপনে মগ্ন থাকি
দাদার প্রয়াণ তখন সামান্য ক’টা দিন বাকি;
তবে কি দাদার শরীরের গন্ধ আনে তাঁর প্রয়াণের স্মৃতি মনে
এবং আমার শরীরের দাদাময় ঘ্রাণ টানে মৃত্যু-আলিঙ্গনে?
২. শান্তিযাত্রা
 
 
তুমি যখন যাচ্ছো ট্রেনে সকল পথে ছুটেছে ট্রেন বেগে
পথের দেখা ট্রেনেরা সব ছুটছে রেগে মেগে,
কমলাপুর পিছনে ফেলে অগ্নিবীণা যাবে জামালপুরে
ট্রেন ছুটেছে তোমায় নিয়ে দূরে অনেক দূরে
নেত্রকোণা এক্সপ্রেসে নিত্য ভিড়ে তুমি
ট্রেন ছুটেছে ট্রেনের ভারে কাঁপছে বনভূমি
ছুটেছে ট্রেন চট্টগ্রামে সিলেট অভিমুখে
পাবনা যাবে রাজশাহীতে তোমায় নিয়ে স্বরবৃত্তে যাবে উর্ধমুখে।
 
ট্রেন ছুটেছে দর্শনাতে কৃষ্ণকলি মন রাঙাতে চোখ রাখতে চোখে
সীমান্ততে থামছে না সে ট্রেনের গতি বল কে আর রোখে
মৈত্রী ট্রেনে যাচ্ছো তুমি ভারত ঘুরে এসে
ব্যস্ত থাকো আপন মনে আড়ালে অবশেষে
ট্রেন যাচ্ছে যাত্রী নিয়ে প্রাতে এবং রাতে
যখন খুশি যাচ্ছে থেমে লালবাতিতে থামার অযুহাতে;
যাচ্ছো তুমি ট্রেনের সাথে যাচ্ছি আমি বাসে
কেউ যাচ্ছে রিক্সা-ভ্যানে পদব্রজে কেউ উর্ধশ্বাসে।
যেখানে যাই প্লেন-শকটে-ডিঙায়-রথে চড়ে
থামবো সবে চলার শেষে আপন অমা-ঘোরে;
বিশ্বময়ী জ্বলছে আলো চলার শেষে ঘোর অন্ধকার
অগস্ত্য এ যাত্রাপথে একাকীত্ব অবিচল-প্রাকার
ছুটছি যত ক্লান্ত তত ভবে জীবনরণে
জীবনের এ চলার পথে শান্তি খুঁজি প্রণয়ালিঙ্গনে।
Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

"রামগতি তোমায় ভালোবাসি"

‘রামগতি তোমায় ভালোবাসি’

সুলতান মাহমুদ আরিফ :: ভালোবাসা আর ভালোলাগার প্রিয় জায়গা রামগতির ভালোবাসাময় প্রিয় ...