Templates by BIGtheme NET
ব্রেকিং নিউজ ❯
{ echo '' ; }
Home / এনজিও / ‘এসডিজি বাস্তবায়নে এক হাজার কোটি টাকার ফান্ড হওয়া প্রয়োজন’
Print This Post

‘এসডিজি বাস্তবায়নে এক হাজার কোটি টাকার ফান্ড হওয়া প্রয়োজন’

টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নে বাংলাদেশ : বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাগুলোর ভূমিকাস্টাফ রিপোর্টার :: টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) বাস্তবায়ন করতে হলে সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে এগিয়ে আনতে হবে। এর জন্য বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাগুলোকে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে। আমরা ইতোমধ্যে ৫০০ কোটি টাকার তহবিল গঠন করেছি; যা এসডিজি বাস্তবায়নে ভূমিকা রাখছে। তবে আরো তহবিল প্রয়োজন। বাজেটে ১০০ কোটি টাকার ফান্ড না হয়ে সেটা ১ হাজার কোটি টাকার ফান্ড হওয়া প্রয়োজন বলে মনে করছেন পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) চেয়ারম্যান অর্থনীতিবিদ ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ।

বৃহস্পতিবার (১৮ মে) সকালে ‘টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নে বাংলাদেশ: বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাগুলোর ভূমিকা’ শীর্ষক সম্মেলনে তিনি এ দাবি করেন।

এনজিও বিষয়ক ব্যুরো এবং এসডিজি বাস্তবায়নে নাগরিক প্লাটফর্ম বাংলাদেশ যৌথভাবে এই সম্মেলনের আয়োজন করে।

এসডিজি বাস্তবায়ন নাগরিক প্লাটফর্মের আহ্বায়ক ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, আমাদের দেশের অধিকাংশ বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা শুধু বিদেশি সাহায্যের ওপর নির্ভর করে তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করে। সরকারের কাছে সংস্থাগুলোর সঠিক হিসাব নেই। বিদেশি সাহায্যের ওপর নির্ভর করে এসডিজি বাস্তবায়ন করা যাবে না। তাই বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাগুলোর বিদেশ নির্ভরশীলতা কমাতে আগামী বাজেটে ১০০ কোটি টাকার একটি ট্রাস্ট ফান্ড গঠন করা যেতে পারে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এসডিজির মূখ্য সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, এসডিজি বাস্তবায়নে সরকারি সংস্থাগুলোর পাশাপাশি বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাগুলোর ভূমিকা অনেক বেশি। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থাগুলোর প্রত্যেককে একটি করে লক্ষ্য ঠিক করে দেওয়া উচিৎ। আজকে ট্রাস্ট ফান্ডের যে পরামর্শ এসেছে এবারের বাজেটে তা গঠন করা সম্ভব হবে না। তবে বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে জানানো হবে।

সম্মেলনে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সিপিডি ফেলো মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি বলেন, প্রাতিষ্ঠাতিক সক্ষমতা, স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা, অংশীদারিত্ব এবং রাজনৈতিক সদিচ্ছাটা জরুরি। আর এ উপাদানগুলো থাকলে এসডিজি অর্জন সম্ভব।

মোস্তাফিজুর রহমান আরো বলেন, আর্থিক ব্যবস্থাপনায় বিদেশি সাহায্যের ওপর নির্ভর করে এসডিজি বাস্তবায়ন করা যাবে না। এটা করা ঠিকও হবে না। তা ছাড়া যে ধরণের অর্থায়ন দরকার তা বৈদেশিক সাহায্যে হবে না। সেজন্য সম্পদ আহরণের দিক থেকে যেমন সমন্বয়ের প্রয়োজন, তেমন ব্যবহারের দিক থেকে দক্ষতা বাড়াতে হবে।

বেসরকারি সংস্থা ‘নিজেরা করি’ এর নির্বাহী পরিচালক খুশী কবীর ও টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামানের সঞ্চালনায় সম্মেলনে বিভিন্ন এনজিওর শীর্ষ কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

 

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful