উইন্ডোজ এক্সপির বিক্ল্প

ঢাকা: গত ৮ এপ্রিল থেকে উইন্ডোজ এক্সপির সব ধরনের হালনাগাদ বন্ধ করে দিয়েছে মাইক্রোসফট করপোরেশন। ফলে এই অপারেটিং সিস্টেমটি এখন ব্যবহারকারীদের জন্য অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। অথচ সারা বিশ্বে ব্যবহারকারীদের এখনো ২০ থেকে ২৫ ভাগ এই অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করেন। আর তারা তো এটি ব্যবহার করেই অভ্যস্ত। হঠাৎ করে ভিন্ন ইন্টারফেসের কোনো অপরিচিত অপারেটিং সিস্টেমে সুইচ করা তাদের জন্য অস্বস্তিকর হবে। এই ধরনের ব্যবহারকারীদের জন্য সবচেয়ে ভালো বিকল্প হতে পারে লিনাক্স মিন্ট। এটি লিনাক্স ডিস্ট্রো উবুন্টুরই একটি মোডিফাইড সংস্করণ।

উন্ডোজের মতো অনেক সফটওয়্যারই লিনাক্সে ফ্রি পাওয়া যায়। আর মিন্টে এগুলোর ইন্টারফেসও উইন্ডোজ এক্সপির মতোই। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হচ্ছে লিনাক্স মিন্ট ডেক্সটপ একেবারে উইন্ডোজ এক্সপির মতো। নিত্য প্রয়োজনীয় এমন কিছু সফটওয়্যারের কথাই এখানে বলা হলো যাতে আপনি লিনাক্সে উন্ডোজের মজা পাবেন।

ইমেইল
ইমেইলের জন্য এক্সপিতে সবাই আউটলুক (Outlook) ব্যবহার করেন। কিন্তু লিনাক্সের ইভোলুশনে (Evolution) আপনি এর চেয়ে অনেক বেশি সুবিধা পাবেন। লিনাক্সের এমন আরো কিছু ওয়েব-মেইল ক্লায়েন্ট আছে যেগুলো ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

ইন্টারফেস
উইন্ডোজ এক্সপি এবং লিনাক্স মিন্টের ইন্টারফেসকে অনেকেই ব্রাদার ইন্টারফেস বলেন। এর ডেস্কটপ এবং অন্যান্য সফটওয়্যারের ইন্টারফেস পাবেন প্রায় একই রকম। এছাড়া লিনাক্স মিন্ট পাচ্ছেন সম্পূর্ণ ফ্রি। ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড করে ইনস্টল দিতে পারেন সহজেই। নিয়মিত হালনাগাদ পাবেন সম্পূর্ণ ফ্রি কোনো ধরনের ঝক্কি ঝামেলা ছাড়াই। আর অসাধারণ গ্রাফিক্সের ভক্ত হয়ে যাবেন তাতে সন্দেহ নেই।

গেম
উইন্ডোজের অনেক গেমই এখন লিনাক্সে পাওয়া যায়। আর পাওয়া না গেলে উইন্ডোজের গেম চালাতে পারেন ওয়াইন দিয়ে। এছাড়া লিনাক্সের সফটওয়্যার ম্যানেজার দিয়ে ডাউনলোড করতে পারেন মজার মজার গেম।

গ্রাফিক্স
লিনাক্সের অসাধারণ একটি ফটোএডিটর আছে। গিম্প (GIMP) নামের এই ফটোএডিটর পাবেন সম্পূর্ণ ফ্রি এবং নিয়মিত হালনাগাদও পাবেন। এটি অনেকটা অ্যাডোব ফটোশপের মতো তবে ততোটা পাওয়ারফুল নয়। তবে অভ্যস্ত হলে এতেই সব কাজ সারতে পারবেন।

ইনস্ট্যান্ট মেসেজ/VoIP
ইনস্ট্যান্ট মেসেজিংয়ের (IM) জন্য ব্যবহার করতে পারেন Pidgin বা Empathy। এতে আপনি একসাথে AIM, Google Talk এবং MSNসহ আরো অন্যান্য আইএম সার্ভিস যোগ করতে পারবেন। আর VoIP এর জন্য ব্যবহার করতে পারেন স্কাইপে।

অফিস সুট
মাইক্রোসফ অফিসে লেখালেখির কাজ করে যারা অভ্যস্ত তাদের জন্য সবচেয়ে স্বস্তিদায়ক হবে LibreOffice। এর সর্বশেষ সংস্করণটি লিনাক্সের সাথেই পাবেন। হালনাগাদ করেও নিতে পারেন। এই অফিস সুটটির সঙ্গে আছে রাইটার, পাওয়ারপয়েন্ট, ক্যালকুলেটর (এক্সেল), ড্যাটাবেজ (এক্সেস)। ইন্টারফেস হুবহু এমএস অফিসের মতো। আর ফাইলও সেভ করতে পারবেন এমএস অফিস ফরমেটে।

ওয়েবব্রাউজার
লিনাক্সে ওয়েবব্রাউজার নিয়ে কোনো চিন্তাই নেই। এর রয়েছে অনেকগুলোতে চমৎকার ব্রাউজার। আপনি ডিফল্ট হিসেবে পাবেন মোজিলা ফায়ারফক্স। তবে ক্রোমিয়াম বা গুগলক্রোম ব্যবহার করে দেখতে পারেন। একই ইন্টারফেসে বেশ ভালো স্পিড পাওয়া যায়। হালনাগাদ সম্পূর্ণ ফ্রি এবং নিরাপদ।

অর্থাৎ উইন্ডোজ এক্সপির হালনাগাদ বন্ধ হয়ে গেছে বলে চিন্তিত হওয়ার কিছু নেই। একটু সময় নিয়ে লিনাক্স মিন্ট ইনস্টল দিয়ে একই ইন্টারফেসে কাজ করুন সমান পারফরমেন্সে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

সংসদ নির্বাচন ঘিরে ‘সাইবার যুদ্ধের’ শঙ্কা

ষ্টাফ রিপোর্টার :: বাংলাদেশে রাজনৈতিক প্রচার-প্রচারণার ক্ষেত্রে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, বিশেষ করে ...