ব্রেকিং নিউজ
Home / অর্থনীতি / ঈদের কেনাকাটায় জমে উঠেছে লক্ষ্মীপুরের ঈদ বাজার

ঈদের কেনাকাটায় জমে উঠেছে লক্ষ্মীপুরের ঈদ বাজার

ঈদের কেনাকাটায় জমে উঠেছে লক্ষ্মীপুরের ঈদ বাজার

জহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:: ঈদ ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে লক্ষ্মীপুরের অভিজাত শপিংমল গুলো থেকে শুরু করে ফুটপাত পর্যন্ত ক্রেতাদের ভিড় বেড়েছে। নতুন পোশাক না হলে ঈদ আনন্দে যেন পূর্ণতা আসে না। ফলে ধনী-গরীব সকলেই সামর্র্থ্য অনুযায়ী নতুন জামা-কাপড় কিনতে ছুটে যাচ্ছে বিভিন্ন বিপণী বিতান গুলোতে।

দিন যত ঘনিয়ে আসছে দোকানে দোকানে ক্রেতাদের ভিড় ততই বাড়ছে। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলে ঈদ বাজারে কেনাকাটা। বিশেষ করে মেয়েদের থ্রি-পিস, শাড়ি কাপড়, কসমেটিকস, ছেলেদের পাঞ্জাবী ও জুতার দোকান গুলোতে ক্রেতাদের বেশি ভিড় দেখা গেছে। ভিড় এড়াতে ছেলে-মেয়েদের সাথে নিয়ে অনেক অভিভাবক দিনের প্রথম ভাগেই ঈদের জামা-কাপড় কিনতে বেরিয়ে পড়েন বাজারে।

কেনাকাটায় প্রতিটি দোকানেই সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত ক্রেতাদের ভিড় লেগে থাকে। স্থানীয় প্রায় প্রতিটি দোকান গুলোর চিত্র মোটামুটি একই। তাই ঈদের কেনাকাটায় জমে উঠেছে লক্ষ্মীপুরের ঈদ বাজার। তবে অনেক ক্রেতাই অভিযোগ করেন, বিক্রেতারা এবার বিভিন্ন জিনিসের দাম গতবারের চেয়ে বেশি নিচ্ছে। অন্যদিকে বিক্রেতাদের দাবী, পাইকারী বাজারে তাদেরকে বেশি দাম দিয়ে জামা কাপড় কিনতে হচ্ছে। সেজন্য বেশি দামেই বিক্রি করছেন তারা।

লক্ষ্মীপুরে অভিজাত বিপণি বিতান গুলোর মধ্যে রয়েছে চকবাজার জামে মসজিদ মার্কেট, সিটি সেন্টারের অঙ্গশোভা, পৌর আধুনিক বিপণি বিতান, পৌর সুপার মার্কেট, আউট লুক, মুক্তিযোদ্ধা মার্কেট, হকার্স মার্কেট, ডা. শাহআলম সুপার মার্কেট, তমিজ মার্কেট, পিংকি প্লাজাসহ বিভিন্ন বিপণি বিতান। রমজান মাস শুরুর আগ থেকে এইসব বিপণি বিতান গুলোতে ক্রেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য আলোকসজ্জা করা হয়েছে। বিভিন্ন বিপণি বিতান গুলোতে আয়োজন করা হয়েছে র‌্যাফেল ড্রয়ের।

বিক্রেতারা জানান, এবার ঈদের বাজার ভারতীয় পণ্যের পাশাপাশি দেশীয় পণ্যের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। ঈদে মেয়েদের শড়ি ও থ্রি-পিস এবং ছেলেদের পাঞ্জাবির চাহিদা রয়েছে বেশি । এ ছাড়া ঈদকে সামনে রেখে বিপণী বিতান গুলোতে দোকানীরা হরেক রকমের ডিজাইনের পোশাকের পসরা সাজিয়েছে। নানা ডিজাইনের নতুন-নতুন ঈদ পোশাক সাজিয়ে ক্রেতাদের আকর্ষণের প্রতিযোগিতা শুরু করেছে দোকানীরা। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত চলছে বেচাকেনা।

ক্রেতারা বিভিন্ন বিপণী বিতান ঘুরে ঘুরে তাদের পছন্দের পোশাক, জুতা, কসমেটিকসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র কেনাকাটা করছেন। বিপণী বিতানগুলো ছাড়াও ফুটপাতের দোকানেও ক্রেতাদের ভিড় বেড়েছে। নি¤œ আয়ের মানুষ নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী তাদের কেনাকাটা সেরে নিচ্ছেন। প্রতি বছরেরর ন্যায় এ বছরেও কেনাকাটায় তরুনী ও গৃহবধূদের প্রাধান্যই বেশী।

লক্ষ্মীপুর বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ জানান, লক্ষ্মীপুরে নতুন-নতুন অনেক মার্কেট ও বিপণী বিতান হয়েছে। ক্রেতারা নির্বিঘেœ তাদের পছন্দ মতো ঈদের কেনাকাটা করতে পারছেন। পণ্যের দাম ক্রেতাদের নাগালের মধ্যেই রয়েছে। তা-ছাড়া ঈদ বাজারে পণ্যের বেশি দাম নেওয়ার সুযোগ নাই।

লক্ষ্মীপুরের পুলিশ সুপার আ স ম মাহাতাব উদ্দিন জানান, বিশৃঙ্খলতা ছাড়া ক্রেতারা যেন নির্বিঘ্নে ঈদের কেনাকাটা করতে পারেন সেজন্য আইন-শৃংখলা বাহিনী তৎপর রয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে শহরের মার্কেট গুলোতে দিনে ও রাতের বেলায় অতিরিক্ত টহল পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

About ahm foysal

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আওয়ামী লীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত

আওয়ামী লীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত

স্টাফ রিপোর্টার :: বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, দলীয় নতুন ভবনের উদ্বোধন, বেলুন ও ...