ইন্দুরকানীতে পানি বৃদ্ধি: ২০ গ্রাম প্লাবিত

ইন্দুরকানীতে পানি বৃদ্ধি: ২০ গ্রাম প্লাবিতমোঃ হাসিব বিল্লাহ, ইন্দুরকানী (পিরোজপুর) প্রতিনিধি :: ইন্দুরকানীতে কচাঁ ও বলেশ্বর নদীর পানি অস্বাভাবিক ভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় নদী তীর বর্তী গুচ্ছ গ্রাম, আবাসন প্রকল্প সহ ২০ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। তেমনি কচাঁ নদীর টগড়া ফেরিঘাটের গ্যাংওয়ে ডুবে যাওয়ায় যানবাহন সহ সাধারণ যাত্রীদের ফেরিতে ওঠানামায় ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে।

রোববার জোয়ারের পানিতে উপজেলার বলেশ্বর নদীর তীরবর্তী চাড়াখালী গুচ্ছ গ্রামের ২০টি বসতঘর পানিতে ডুবে যাওয়ায় পরিবারগুলো দূর্ভোগে পড়েছে। এছাড়া কচাঁ নদীর তীরবর্তী টগড়া গ্রাম, খোলপটুয়া গ্রাম, কলারণ গ্রাম, চর বলেশ্বর গ্রাম, চন্ডিপুর গ্রাম, ইন্দুরকানী গ্রাম, কালাইয়া গ্রাম, উমেদপুর গ্রাম সহ নদী তীরবর্তী ২০ গ্রামের অধিকাংশ স্থানে বেড়িবাধ না থাকায় ওই গ্রামগুলো পানিতে ডুবে যাওয়ায় এলাকাবাসী জোয়ারের সময় চরম ভোগান্তিতে পড়েছে।

অপরদিকে সাঈদখালী আবাসন প্রকল্প ও পাড়েরহাট আবাসন প্রকল্পে জোয়ারের পানিতে ডুবে যাওয়ায় দেড় শতাধিক পরিবার জনদূর্ভোগে পড়েছে। তবে ভাটিতে পানি নদীতে নেমে যাওয়ায় তাদের জীবন যাত্রা আবার স্বাভাবিক হয়ে যায়।

উপজেলার বিভিন্ন ফসলের মাঠে জোয়ারের পানি ঢুকে যাওয়ায় সবজি ক্ষেত ও আমন বীজ তলার ব্যাপক ক্ষতি হওয়ায় সম্ভাবনা রয়েছে বলে কৃষকরা জানান। এছাড়া জোয়ারের পানিতে উপজেলার পত্তাশী এস. দাখিল মাদ্রাসা সহ নদী তীরবর্তী বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাঠ তলিয়ে গেছে।

কচাঁ নদীর তীরবর্তী টগড়া গ্রামের বাসিন্দা ইউপি সদস্য আঃ রাজ্জাক জানান, বেঁড়িবাধ না থাকায় জোয়ারের পানিতে নদী তীরবর্তী গ্রামগুলো জোয়ারে তলিয়ে যায় আবার ভাটায় শুকায়।

এ বিষয় উপজেলা চেয়ারম্যান মাসুদ সাঈদী জানান, কচাঁ ও বলেশ্বর নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় এবং অধিকাংশ বেড়িবাধ না থাকায় জোয়ারের পানিতে অধিকাংশ গ্রাম ডুবে যাওয়ায় এলাকা বাসী সীমাহীন দূর্ভোগে পড়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

রোকেয়া আকতার প্রধান শিক্ষক

আরেক প্রধান শিক্ষকের অপসারন দাবী: অনিয়মের অভিযোগ

খোরশেদ আলম বাবুল, শরীয়তপুর প্রতিনিধি :: জাজিরায় এক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের ...