আলোকিত নারী সম্মাননা পেলেন আট গুণী নারী

আলোকিত নারী সম্মাননা পেলেন আট গুণী নারী

স্টাফ রিপোর্টার :: সমাজ, সংস্কৃতি, সাহিত্য, অর্থনীতি, ক্রীড়াসহ নানা ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় আটজন গুণী নারীর হাতে তুলে দেওয়া হয় ‘আলোকিত নারী ২০১৮ সম্মাননা পুরস্কার’। নারীর পথচলায় উৎসাহ দিতে প্রতিবছর আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে এ পুরস্কার প্রদান করে বেসরকারি টেলিভিশন আরটিভি।

এ বছর আলোকিত নারী সম্মাননা পুরস্কার পেয়েছেন চিকিৎসায় ডা. অধ্যাপক সায়েবা আক্তার, সাহিত্যে কবি রুবি রহমান, সংগীতে শাহীন সামাদ, সমাজসেবায় ড. হোসনে আরা বেগম, নারীর ক্ষমতায়নে পারভিন মাহমুদ এফসিএ, শিল্পকলায় মৌলুদা খানম, চ্যালেঞ্জিং পেশায় নাসরিন সুলতানা এবং ক্রীড়ায় আঁখি খাতুন।

পুরস্কার ও সম্মাননা প্রদান উপলক্ষে শুক্রবার (৯ মার্চ) রাতে রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে জমকালো অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সমাজের নানা ক্ষেত্রের গুণীজন। তাঁদের উপস্থিতিতে আট নারীকে সম্মাননা জানানো হয়। পুরস্কার হিসেবে আট নারীকেই তুলে দেওয়া হয় সম্মাননা ক্রেস্ট। দেওয়া হয় উত্তরীয় ও সম্মাননাপত্র।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, বিশেষ অতিথি মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপুমনি, আরটিভির চেয়ারম্যান মুর্শেদ আলম, সংসদ সদস্য শিরীন আক্তার, সংসদ সদস্য নুরজাহান বেগম মুক্তা, কালের কণ্ঠ সম্পাদক কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন, কালের কণ্ঠ’র নির্বাহী সম্পাদক কথাসাহিত্যিক মোস্তফা কামাল প্রমুখ পুরস্কারপ্রাপ্তদের হাতে তুলে দেন আলোকিত নারী সম্মাননা পুরস্কার।

আলোকিত-নারী-২০১৮এ সময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘সমাজ ও রাষ্ট্রের নানা গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে সম্মানের সঙ্গে কাজ করছেন নারীরা। সমাজের একেবারে নিম্নস্তর থেকে উঁচুস্তরেও তাঁরা দক্ষতার সঙ্গে কাজ করছেন। তাঁদের শ্রমে ও অদম্য সাহসে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।’

মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, ‘কিছুদিনের মধ্যেই উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে স্বীকৃতি পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। আমাদের এ দেশ যে এগিয়ে যাচ্ছে, এখন সারা বিশ্বেই তা স্বীকৃত। আর এগিয়ে চলার পেছনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছেন নারীরা। পুরুষের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে নারীরা সমানতালে এগিয়ে আসতে পারলে বাংলাদেশ উন্নত দেশে রূপান্তরিত হবে।’

স্বাগত বক্তব্যে আরটিভির চেয়ারম্যান মুর্শেদ আলম বলেন, ‘বাংলাদেশে মোট জনসংখ্যার অর্ধেক নারী। এ বিপুল জনসংখ্যাকে পেছনে ফেলে রেখে সামগ্রিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। পুরুষের সঙ্গে নারীরাও যদি সমানভাবে এগিয়ে যায়, তাহলে দেশও এগিয়ে যাবে।’

পুরস্কার প্রদান উপলক্ষে পুরস্কারপ্রাপ্ত গুণীদের নিয়ে নির্মিত একটি তথ্যচিত্র দেখানো হয়। তাতে তুলে ধরা হয় নানা ক্ষেত্রে তাঁদের অবদান ও মূল্যায়ন। এ ছাড়া আয়োজিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক পরিবেশনাও। অনুষ্ঠানের শুরুতে অভিনেত্রী মেহজাবীনের নেতৃত্বে নৃত্য পরিবেশন করেন নৃত্যভূমির শিল্পীরা। এ ছাড়া শাফা কবির ও টয়ার নেতৃত্বে নৃত্যভূমির শিল্পীরা নৃত্য পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠানে গান গেয়ে শোনান শিল্পী আবিদা সুলতানা।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মালয়েশিয়ায় ৫৫ বাংলাদেশি আটক

ডেস্ক রিপোর্ট :: মালয়েশিয়ায় ওয়ার্ক পারমিটের নিয়ম লঙ্ঘন করে কাজ করার অভিযোগে ...