ব্রেকিং নিউজ
Home / জাতীয় / আগামী বর্ষা মৌসুমের আগে ঢাকার জলজট নিরসন হবে: এলজিআরডি মন্ত্রী

আগামী বর্ষা মৌসুমের আগে ঢাকার জলজট নিরসন হবে: এলজিআরডি মন্ত্রী

আগামী বর্ষা মৌসুমের আগে ঢাকার জলজট নিরসন হবে: এলজিআরডি মন্ত্রীস্টাফ রিপোর্টার :: স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, অপরিকল্পিতভাবে নগরায়নের ফলে আজ এ জলজটের সম্মুখীন হতে হয়েছে। ঢাকা শহরের ড্রেনেজ সিস্টেম আধুনিকায়ন, খাল সংস্কার ও পুনরুদ্ধারে মন্ত্রণালয় কাজ করছে। দুই সিটি কর্পোরেশন ও ওয়াসার সমন্বয়ে আগামী বর্ষা মৌসুমের আগে ঢাকার জলজট নিরসন হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

মন্ত্রী বলেন, ঢাকাসহ দেশের অন্যান্য মহানগরীতে বর্জ্য ব্যবস্থাপনার নাজুক অবস্থার কারণে জনস্বাস্থ্য হুমকীর সম্মুখীন। স্বাস্থ্যকর ও পরিচ্ছন্ন নগরী গড়ে তুলতে আধুনিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভাসমূহকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে হবে।

মন্ত্রী আজ রবিবার রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি কর্পোরেশন এবং প্রিজম বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন-আয়োজিত “মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা” বিষয়ক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র মোঃ ওসমান গনি’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন – ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাইদ খোকন এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব আবদুল মালেক।

মন্ত্রী বলেন, দেশের মহানগর ও শহরসমূহে প্রতিদিন কয়েক হাজার টন বর্জ্য উৎপন্ন হয়। সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভাসমূহের জন্য বিশাল পরিমান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা অত্যন্ত চ্যালেঞ্জ। গৃহস্থালীর বর্জ্য, শিল্প বর্জ্যরে পাশাপাশি মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনাও চ্যালেঞ্জ হিসেবে দাঁড়িয়েছে। বর্জ্যসমূহ সঠিকভাবে ব্যবস্থাপনা না করা হলে তা জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশের জন্য মারাত্মক বিপর্যয় সৃষ্টি করবে।

মন্ত্রী বলেন, দেশে প্রায় ৪ হাজারের অধিক চিকিৎসা সেবা প্রতিষ্ঠান ও ৭০০ এর অধিক ঔষধ কারখানা থেকে প্রতিদিন কয়েক শত টন মেডিকেল বর্জ্য উৎপন্ন হয়। এসব বর্জ্য সঠিক ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে পুনঃব্যবহার, পুনঃউৎপাদন ও ধ্বংস করতে হবে। এ সময় মন্ত্রী ঢাকা মহানগরীর বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় ইনসিনারেশন (বর্জ্য পুঁড়িয়ে ছাই) প্রকল্প গ্রহণের কথা জানান।

মন্ত্রী চিকিৎসা বর্জ্য উৎপাদনকারী হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ঔষধ কোম্পানীসমূহকে বিদ্যমান আইন-কানুন ও পরিবেশ বিধি মেনে চলার আহ্বান জানান। তিনি স্থানীয় সরকারের অন্যান্য প্রতিষ্ঠানসমূহকেও এ বিষয়ে সক্ষমতা বাড়াতে বলেন। মন্ত্রী চিকিৎসা বর্জ্যরে বিষয়ে প্রতিটি নাগরিককে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাইদ খোকন বলেন, ঢাকা শহরে আমরা প্রতিদিন প্রায় ৮ টন মেডিকেল বর্জ্য ধ্বংস করছি। তিনি স্বাস্থ্যকর বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করতে নগরবাসীকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।

এর আগে মন্ত্রী নির্মল পরিবেশ ও স্বাস্থ্যবান প্রজন্ম গড়তে “মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা” শীর্ষক দিনব্যাপী সেমিনারের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বাংলাদেশ মডেল ইয়ূথ পার্লামেন্ট

স্কুল পর্যায়ে ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি শিশু অধিকারকর্মীদের

ডেস্ক নিউজ :: শিশুরাই দেশের বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ ...